Story

কীর্তন দলে তবলা বাজিয়ে শুরু, আজ বলিউডের জনপ্রিয় গায়ক তিনি, বাবার কাছে প্রথম হাতে খড়ি দুর্গাপুরের ছেলে মিকা সিং এর

দুর্গাপুরে জন্মগ্রহণ করা ছেলেটা আজ বলিউডের বিখ্যাত গায়ক, নতুন জেনারেশন তার গানে মজেছে। রিমিক্স থেকে রক গান সবেতেই পারদর্শী সকলের প্রিয় মিকা সিং। যার আসল নাম অমৃক সিং। তার বর্তমান ম্যানেজারের পরামর্শ তেই আসল নাম ছোট করে ডাকনাম মিকা সিং রাখেন তিনি।

সেই নামেই বর্তমানে পরিচিত সারা ভারতবাসীর কাছে। মিকা সিং এর জন্ম পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুরে। কাজের সূত্রে বাবাকে বিহার চলে যেতে হয় সেই সূত্রেই মিকার পুরো পরিবার বিহারে চলে আসে। মিকারা মোট ছয় ভাই ছয় ভাইয়ের মধ্যে সবথেকে কনিষ্ঠতম মিকা।

ছোট থেকেই পড়াশোনার প্রতি একদমই আগ্রহী ছিলেন না মিকা সিং, বরং গানের প্রতি অসম্ভব ভালোবাসা ছিল। গান বাজনা শেখার প্রতি ঝোঁক ছিল প্রবল। মিকা সিং এর বাবার শাস্ত্রীয় সংগীতে প্রশিক্ষিত ছিলেন, বাবার রেওয়াজ এই সকালে ঘুম ভাঙতো মিকা র। সেই সূত্রেই খুব ছোট থেকেই সংগীত এর প্রশিক্ষণ শুরু হয়ে গিয়েছিল তার। পঞ্চম শ্রেণি অব্দি পড়াশোনা করার পরে তিনি আর পড়াশোনা নিয়ে এগোননি।

গান বাজনা নিয়েই এগিয়ে ছিলেন। ছোটবেলায় তবলা খুব ভালো বাজাতেন তিনি, বাবার সঙ্গে পটনা সাহিব গুরুদ্বারে কীর্তন এর মাঝে তবলা বাজাতে তিনি সঙ্গে থাকত তার পাঁচ ভাই। সেই কীর্তন দলের তবলা বাদক থেকে আজ বলিউডের অন্যতম একজন গায়ক মিকা, সঙ্গে তার একজন দাদা এই ইন্ডাস্ট্রিতে গান করেছে, নাম মেহেন্দি। প্রথম প্রথম কীর্তন দোলে তবলা বাজিয়ে ১০০ টাকা উপার্জন করতেন মিকা, পরে তার দাদা একটি ব্যান্ড গড়ে তোলে সেটি জনপ্রিয় হলে সেই ব্যান্ডেই গিটার শিখতে আরম্ভ করেন তিনি।

ব্যান্ড এ কাজ করতে করতে মিকার গান গাওয়ার ইচ্ছে জাগে। তার দাদা ভাই কে নিরাশ না করে বলিউডের নামজাদা সঙ্গীত পরিচালকের সঙ্গে আলাপ করিয়ে দেন। মিকা সিংয়ের দাদার অনুরোধে সকল সংগীত পরিচালক তাকে গান গাওয়ার সুযোগ দেয় কিন্তু কোন পরিচালকেরই তার কন্ঠ পছন্দ হয়না।

ভাঙ্গা হৃদয় আবার ফেরত চলে আসে যোগদান করে তার দাদার ব্যান্ডে, ভাই কে নিজের ব্যান্ডেই গানের সুযোগ করে দেয়। পরে নিজেই নিজের একটি ব্র্যান্ড গড়ে তোলেন মিকা সিং সেখানে নিজের লেখা গান নিজের সুরে গানের জনপ্রিয়তা পায় মিকা।

১৯৯৮ সালে প্রথম তার গাওয়া ‘সাওয়ান ম্যা লাগ গ্যায়ি আগ’ গান জনপ্রিয়তা লাভ করে। এরপর ফের ২০০১ সালে গাব্রু গানের মাধ্যমে জনপ্রিয়তা আসে। তারপর একের পর এক হিট গান জনপ্রিয় লাভ করতে থাকে মিকা সিংয়ের। তবে প্রথমবার বলিউড ফিরিয়ে দেওয়ার পরেই দ্বিতীয় সুযোগ আসায় তিনি একটু দ্বিধায় দিয়েছিলেন বলিউডে কাজ করার ইচ্ছে তার বরাবরই ছিল কিন্তু ফিরিয়ে দেওয়ায় তিনি প্রথমে বেশ ভেঙে পড়েছিলেন।

বলিউডের সুযোগ আসে ২০০৬ সালে ‘আপনা সপ্না মানি মানি’ গানের মাধ্যমে। প্রথম গান হিট হওয়ায় পরই একের পর এক হিট গান রিলিজ করে। এছাড়া বাংলা ইন্ডাস্ট্রিতে মিকা সিং প্রচুর বিখ্যাত গান গেয়েছেন পাগলু, পাগলু টু, খোকাবাবু, রংবাজ, খোকা 420, হিরোগিরি মতো জনপ্রিয় বাংলা ছবিতে মিকা সিং গান গেয়েছেন। এছাড়াও তামিল এবং তেলেগু ভার্সনেও তার অনেক গান রয়েছে।

তবে জনপ্রিয়তার পাশাপাশি মিকা সিং কে নিয়ে বহুবার বহুরকম বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর মিকার জন্মদিন পার্টিতে উপস্থিত ছিল বলিউডের একাংশ। সেই পার্টিতে উপস্থিত রাখি সাওয়ান্ত কে জড়িয়ে চুমু খাওয়ার দৃশ্য সোশ্যাল মিডিয়ার সামনে আসে সেই নিয়ে তৈরি হয় বিতর্ক।

২০১৫ সালে ফের বিতর্কে জড়ান গায়ক গানের শোতে একজন দর্শককে মঞ্চে ডেকে এনে থাপ্পর মারার অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে। তবে তিনি জানান যে ওই দর্শকের পাশে থাকা মহিলাদের বিরক্ত করছিলেন তাই জন্যই তিনি এ কাজ করতে বাধ্য।

২০১৬ সালে মিকার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ আসে একজন ফ্যাশন ডিজাইনারের সঙ্গে শ্লীলতাহানীর অভিযোগ উঠে আসে তার বিরুদ্ধে। একটি দু’বছর পরে ১৭ বছরে একজন ব্রাজিলিয়ান কে উত্যক্ত করার অভিযোগে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। তবে সবচেয়ে বড় বিতর্ক সৃষ্টি হয় ২০১৯ সালে পুলওয়ামা কাণ্ডের সময়।

ওই বছরেই মিকা সিং পাকিস্তানের পারভেজ মুশারফের এক আত্মীয়র বাড়িতে গান গেয়ে তুমুল বিতর্ক এর মধ্যে পড়েন সাড়া সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে তাকে নিয়ে ধিক্কার পড়ে যায়। এই ঘটনা তার ক্যারিয়ার জীবনের বিরাট প্রভাব ফেলেছিল। অল ইন্ডিয়া সিনে ওয়ার্কারস অ্যাসোসিয়েশন তাকে ভারতীয় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে নিষিদ্ধ করে দেয়। এরপর ও ২০২০ সালে তার দুটি গান রিলিজ হয়, তবে দুটোর একটাও সাফল্য অর্জন করতে পারনি।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!
Back to top button