Story

অভাবের কারণেই বিয়ে হয়ে যায় ফাতিমার! অদম্য ইচ্ছে ও জেদের জন্যই স্বপ্ন পূরণ করে আজ IAS অফিসার

মানুষ যদি মন থেকে কিছু চায় তাহলে সে সেটা পায়। আবারো প্রমাণ করলো ফাতিমা। ছোট থেকেই অভাবের মধ্যে মানুষ হয়েছে সে। সংসারে অভাবের জন্যই বিয়ে হয়ে যায় তার। তবে বিয়ে তার জীবনে তার স্বপ্ন পূরণের ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়ায়নি। নিজের অদম্য ইচ্ছাশক্তি ও জেদের জন্যই তিনি আইএএস অফিসার হয়েছেন।

ফাতিমা একটি গ্রামের মেয়ে। তার বাবা অ্যাকাউন্টেন্ট। খুব অভাবের মধ্যেই পড়াশুনা করেছে সে। ছোট থেকেই অনেক বড় হওয়ার ইচ্ছে ছিল তার। অনেক উঁচু পদে চাকরি করার ইচ্ছা ছিল ফাতিমার। উচ্চমাধ্যমিকে দুর্দান্ত ফল করেছিল সে। আর্থিক কারণে খুব কষ্ট করেই বিএসসি পাশ করে ফাতিমা। তবে পরবর্তীকালে সংসারের হাল ধরতে রোজগারের জন্য একটি প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষিকা হিসেবে শিক্ষকতা শুরু করেন তিনি।

শিক্ষকতা করতে করতেই বাড়ি থেকে প্রায় জোর করেই বিয়ে দিয়ে দেওয়া হয় তার। বিয়ে হয়ে গেলেও নিজের স্বপ্নের কথা ভোলেনি সে। বিয়ের পরে ২০১৭ সালে ইউপিএসসি’র পরীক্ষা দেয় ফাতিমা। প্রথম সুযোগেই ৮১০ নম্বরে নাম ওঠে তার। বর্তমানে তিনি মহারাষ্ট্রের একজন কৃষি অফিসার হিসেবে রয়েছেন। আজকের দিনে দাঁড়িয়ে সে নিজের পরিবারের সকলের মুখ উজ্জ্বল করে দিয়েছে। মাথা উঁচু করে স্বপ্নপূরণ করেছেন নিজের। ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়, প্রমাণ করেছেন তিনি। সকল স্বপ্ন দেখা মেয়েদের কাছে অনুপ্রেরণা হয়েছেন ফাতিমা।

Back to top button