Story

অলিম্পিকে রৌপ্য পদক জয়ের পরও নেই কোন অহংকার, দেশের তৈরি সাধারন হাতে বোনা কাপড়েই বিশ্বাসী মীরাবাঈ চানু

টোকিও অলিম্পিক্সে ভারত প্রথম মীরাবাঈ এর হাত ধরে অলিম্পিকে পদক আনে। ভারত্তোলনে স্ন্যাচ ও ক্লিন অ্যান্ড জার্ক মিলিয়ে ২০২ কেজি ওজন তুলে রুপো জিতলেন মীরাবাঈ চানু। এই মুহূর্তে তিনি সারা ভারতবর্ষের গর্ব।

ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়েছে তাকে, এর পাশাপাশি চানু তার গ্রামের হ্যান্ডলুম ইন্ডাস্ট্রি থেকে কতটা সাহায্য পেয়েছেন এবং তার পদক বিজয়ের পর কারিগরদের ভূমিকা সকলের সঙ্গে আলোচনা করতে বলেছেন।

প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির এই অনুরোধ চানু চলতি বছরের ন্যাশনাল হান্ডলুম ডে তে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে একটি ভিডিও সকলের সঙ্গে শেয়ার করেন এই ভিডিওটিতে ধরা দিয়েছে তার ছোট্ট গ্রামের বৃহৎ প্রচেষ্টার গল্প।

২০২১ টোকিও অলিম্পিকে রৌপ্য পদক বিজয়ী পড়ে যান তার গ্রাম সম্পর্কে বহুবার বিভিন্ন তথ্য বলেছেন তার গ্রামের হ্যান্ডলুম ইন্ডাস্ট্রির সম্পর্কেও বহু ঘটনা তিনি সকলের সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছেন। চানুর মা এবং তার বোন দুজনেই হ্যান্ডলুম কারখানায় কাজ করতেন এবং সেই অর্থ দিয়ে সংসার খরচ এবং চানূর ট্রেনিং এর খরচ চলত।

তাদের পরিশ্রমের জন্য চানু আজ অলিম্পিকে এত বড় এক সম্মান অর্জন করতে পেরেছেন তা তিনি সব সময় সকলের সামনে স্বীকার করেন।

হ্যান্ডলুম ডে তে চানু ইনস্টাগ্রামে তার গ্রামের শিল্পের দৃশ্য তুলে ধরে সকলের সামনে। সেখানে দেখা যাচ্ছে সকলেই নিজের হাতে যত্ন সহকারে কাপড় বুনছেন এবং তিনি বলেন এই কাপড় বোনার অর্থ দিয়েই তাদের সংসার চলে। অলিম্পিকসে যাওয়ার স্বপ্ন তার এই হ্যান্ডলুম ইন্ডাস্ট্রির জন্যই।

হ্যান্ডলুম ইন্ডাস্ট্রি তাকে অলিম্পিকে পৌঁছে যেতে অনেক সাহায্য করেছেন। এছাড়াও গ্রামের বিভিন্ন ছেলেমেয়েদের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে ইন্ডাস্ট্রির অর্থ থেকেই। তাই তিনি চাই এই হ্যান্ডলুম ইন্ডাস্ট্রিজ আরো অনেক বড় হোক আরো অনেক বড় জায়গায় পৌঁছাবে এবং এভাবেই সকল ছেলেমেয়েদের স্বপ্ন পূরণ করতে থাকুক।

Back to top button