আপনি কি জানেন ভারতে রয়েছে এমন নদী যেখানে বালির মধ্যে পাওয়া যায় সোনা!

কখনো যদি জানতে পারেন আপনার বাড়ির পাশ দিয়ে বয়ে চলা নদীতে সোনা আছে, তখন কি করবেন। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি।

ভারতে এমন বেশ কিছু নদীর সন্ধান পাওয়া গেছে যাদের বালির মধ্যে রয়েছে সোনা। তবে চলুন জেনে নিন এমন কয়েকটি নদীর সম্পর্কে।

সুবর্ণ রেখা নদী সম্পর্কে কেউ জানেনা হতে পারে না। কিন্তু সুবর্ণ রেখা নদীতে যে সোনা পাওয়া যায় তা কি জানেন। এই নদীর উৎপত্তি ঝাড়খণ্ডের পিস্কা গ্রাম থেকে। কথিত আছে এই নদীর উৎপত্তিস্থলে সোনার খনি ছিল।

সেই জন্যই নদীটির নাম সুবর্ণ রেখা। অনেক সময় নাকি খনি থেকে সোনা নদীর জলে বয়ে চলে আসতো। বর্ষার পর নদীর জল কমে আসলে নাকি তীরে সোনার টুকরো ভেসে ওঠতে দেখা গেছে। এমনকি আজও স্থানীয় লোকেদের নদীর তীরে সোনা খুঁজতে দেখা যায়।

খারকাই নদী সুবর্ণ রেখার উপনদী হল খারকাই নদী। জামশেদপুরের আদিত্যপুর এর উপর দিয়ে বয়ে গেছে এই নদী। লোকমুখে শোনা যায় মাত্র ৩৭ কিলোমিটার দৈর্ঘের এই নদীতে নাকি সোনা পাওয়া যায়।

তবে স্হানীয় লোকেদের মোতে সারাদিন খোঁজার পর চালের থেকেও ছোট এক টুকরো পাওয়া গেলেও পাওয়া যেতে পারে।

শুধুমাত্র ভারতে নয়, ভারতের বাইরে বিদেশেও এমন নদীর সন্ধান পাওয়া গেছে যেখানে সোনা পাওয়া যায়। ক্লোনডাইক নদী, কানাডার ডসন শহরের ইউকন নদীর উপনদী হল ক্লোনডাইক।

ওজিলভিয়ে পর্বতের থেকে সৃষ্টি হয়েছে নদীটি। ১৮৯৬ সালে ১৬ আগস্ট জর্জ ক্যারমার্ক প্রথম এর সন্ধান দেন। এই খবর ছড়িয়ে পরার পর বহু মানুষ নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সোনা উত্তোলন করে প্রচুর ধনী হয়ে যান। এমনকি এখনো চাইলে যে কোনো ব্যাক্তি সোনার সন্ধানে ওই অঞ্চলে যেতে পারে।