বাবা পারেননি, তবে মেয়ে IAS হয়ে তাক লাগালেন সকলকে, উত্তরপ্রদেশের ছোট্টগ্রামের এক মেয়ের এই স্বপ্নপূরণ এখন নেট দুনিয়ায় ভাইরাল!

উত্তরপ্রদেশ! নাম শুনলেই প্রথমে মনে ভেসে ওঠে একের পর এক নারী নির্যাতনের ঘটনা। দেশের অন্যান্য বেশ কিছু রাজ্যের মত উত্তরপ্রদেশও শিশু কন্যা ভ্রূণ হত্যায় বেশ পারদর্শী।

তবে সেই উত্তরপ্রদেশেরই রবার্ট গঞ্জ নামক ছোট্ট পরিসরের এক মেয়ের গ্রাম থেকে উঠে এসে IAS অফিসার হওয়ার গল্প হার মানাবে বলিউডি মুভিকেও। কারণ ছোট্ট গ্রাম থেকে উঠে আসা সেই মেয়ে শুধুমাত্র যে সামাজিক নানা বাধাকে পার করেছেন তাই নয়, পাশাপাশি বাবার অধরা স্বপ্নকেও পূরণ করেছেন।

উত্তরপ্রদেশের সাক্ষী গর্গের জীবন কাহিনী হার মানাবে যেকোনো অনুপ্রেরণামূলক সিনেমাকে। সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানিয়েছেন বরাবরই পড়াশোনায় ভালো ছিলেন তিনি তবে ইউপিএসসি পরীক্ষা দিয়ে আইএএস অফিসার হওয়ার স্বপ্ন তার মনে আসে হাই স্কুলে পড়াকালীন।

Sakshi Garg

৭৬ শতাংশ নম্বর নিয়ে মাধ্যমিক এবং ৮১.৪ শতাংশ নম্বর নিয়ে দ্বাদশ শ্রেণী উত্তীর্ণ হয়েছিলেন তিনি। এরপরই ইউপিএসসি পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নেওয়ার চেষ্টা করেন তিনি। তবে উত্তরপ্রদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের ছাত্রী হওয়ার কারণে ইউপিএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য কোন উন্নত সুযোগ-সুবিধা পাননি।

তবে হাল ছাড়েননি সাক্ষী। স্নাতক করার পরে খোঁজ পান দিল্লির এক কোচিং সেন্টারের। পরিবার থেকে অনেক দূরে গিয়ে দিল্লিতে থেকে ইউপিএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে থাকেন তিনি। এ থেকেই বোঝা যায় আইএস অফিসার হওয়ার জন্য অনেক রকম ত্যাগ স্বীকার করতে হয়েছে তাকে।

শেষ পর্যন্ত ২০১৮ সালে বাবা কৃষ্ণকুমার গর্গ এবং মা রেনু দেবীর মুখ উজ্জ্বল করে ইউপিএসসি পরীক্ষায় পাশ করেন তিনি। তার এই সাফল্যের পেছনে পুরো কৃতিত্বটাই তিনি দিয়েছেন তার বাবা-মা এবং পরিবারকে।
উত্তরপ্রদেশের ছোট্ট গ্রামের এক মেয়ের এই সাফল্য সত্যিই অনুপ্রেরণা মূলক।