Story

‘দিদিমা ছিলেন মাস্টারদা সূর্য সেনের ছাত্রী, আর মায়ের ছিল অবিশ্বাস্য মনের জোর’! মা-দিদিমার অসাধারণ সংগ্রামের গল্প সামনে আনলেন অভিনেত্রী অপরাজিতা আঢ্য

এই মুহূর্তে টলিউডের অন্যতম সফল অভিনেত্রী হলেন অপরাজিতা আঢ্য। তবে তার ব্যক্তিগত জীবনের সংগ্রামের গল্প খুব কম সংখ্যক মানুষই জানেন। এবার সমাজে নারীর অবস্থান নিয়ে কথা বলতে গিয়ে অভিনেত্রী সামনে আনলেন তার পরিবারের নারীদের সংগ্রামের গল্প। কিভাবে তার মা এবং দিদিমা লড়াই করে আজকে তাকে একজন স্বাধীন নারী হয়ে উঠতে সাহায্য করেছেন, সে কথাই সকলের সামনে তুলে ধরলেন অভিনেত্রী।

এ প্রসঙ্গে অপরাজিতা জানিয়েছেন তার দিদিমা ছিলেন মাস্টারদা সূর্য সেনের ছাত্রী। অতি অল্প বয়সে কলকাতায় গিয়ে বিয়ে হয়ে যাবার পর তাকে নিয়মিত স্বামীর কাছে অত্যাচারিত হতে হতো। এরপর স্বামী দ্বিতীয় বিবাহ করলে দুই কন্যা সন্তানকে নিয়ে বাপের বাড়িতে ফিরে আসেন অভিনেত্রীর দিদিমা। এরপর স্কুলে শিক্ষকতার চাকরি নিয়ে দুই কন্যাকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করে তোলেন তিনি।

অভিনেত্রী এদিন সকলের সামনে জানিয়েছেন তার মায়ের সংগ্রামের গল্পও। নকশাল আন্দোলনের সময় একেবারে সামনে থেকে একজনকে খুন হতে দেখেছিলেন অভিনেত্রী মা। ওই একই ঘটনা দেখে তার বাবা শারীরিকভাবে চিরকালের জন্য অসুস্থ হয়ে পড়লেও অভিনেত্রীর মা হার মানেননি। বরং তিনি যখন বাইরে স্কুলে চাকরি করতেন তখন অভিনেত্রীর বাবাই তাকে মানুষ করে তোলেন।

বলাই বাহুল্য সকলের প্রিয় অভিনেত্রীর পরিবারের এই সংগ্রামের গল্প আরো একবার সোশ্যাল মিডিয়ার দর্শকদের বেশ অনুপ্রাণিত করেছে।

Back to top button