Story

বিশাল কোটিপতি হয়েও সুখ নেই জীবনে! বড়লোক শ্বশুরবাড়ি স্বামীর ঘর ছেড়ে বাপের বাড়িতে এসে থাকছেন অমিতাভ কন্যা শ্বেতা বচ্চন

বলিউডের বিগ বি অমিতাভ বচ্চন ও তার পরিবারকে নিয়ে চর্চা শেষ নেই। মাঝেমধ্যেই খবরের শিরোনামে উঠে আসে বচ্চন পরিবারের সদস্যরা। অভিষেক বচ্চন, কখনো পুত্রবধূ ঐশ্বরিয়া রায় বচ্চন আবার অমিতাভ বচ্চন নিজেও এরকম অনেক ধরনের ঘটনাই মাঝেমধ্যে চর্চা শিরোনামে থাকে। মাঝে মাঝে মধ্যেই আবার মেয়ে শ্বেতা বচ্চন খবরের পাতায় চলে আসে।

এমনিতে শ্বেতা বচ্চনের সঙ্গে অমিতাভ বচ্চনের সম্পর্ক একেবারে বন্ধুর মত। দুজনেই বেশ ভালো বন্ডিং তৈরী করে নিয়েছে নিজেদের মধ্যে। মেয়ের সাথে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি আপলোড করা থেকে শুরু করে প্রতিদিন মেয়ের খোঁজ নেওয়া সবটাই পালন করেন অমিতাভ বচ্চন।

১৯৯৭ সালে মাত্র ২১ বছর বয়সে শ্বেতার বিয়ে হয় জনপ্রিয় ব্যবসায়ী নিখিল নন্দার সঙ্গে। নিখিল হল রাজ কাপুরের মেয়ে ঋতু নন্দা ছেলে। শ্বেতা এবং নিখিলের একজন পুত্র সন্তান এবং একজন কন্যা সন্তান রয়েছে তাদের নাম নব্যা নভেলি নন্দা ও আগস্তা নন্দা। শ্বেতার স্বামী নিখিল নন্দা এস্কর্ট গ্রুপের চিফ অপারেটিং অফিসার। স্বামী কোটিপতি হওয়া সত্ত্বেও শ্বেতা বর্তমানে বচ্চন পরিবারে এসে থাকছে। যে কথাটি জানাজানি হওয়ার পর এই সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে নানা রকম মন্তব্য সমালোচনা উঠেছে। অনেকেই বলছেন শ্বেতার সঙ্গে তার শ্বশুরবাড়ির সম্পর্ক ভালো নয়, আবার অনেকেই বলছেন নিখিল এবং শ্বেতার মধ্যে সম্পর্ক নষ্ট হচ্ছে।

কিন্তু এই ধরনের কোন কথাই এখনো শোনা যায়নি নিখিল এবং শ্বেতা দুজনেই নিজেদের কাজের জগতে ব্যস্ত। শ্বেতা ইতিমধ্যেই একজন সাংবাদিক হোস্ট ও মডেল হিসেবে কাজ করেছেন। এমনকি ২০১৮ সালে এম এক্স এস নামে নিজের ফ্যাশন কোম্পানি লঞ্চ করেছিলেন এছাড়াও ২০১৮ সালে কল্যাণ জুয়েলার্সের ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর ছিলেন তিনি।

Back to top button