রচনা ব্যানার্জীর দ্বিতীয় স্বামী কে চেনেন? অভিনেত্রী খুব ভালোবাসেন তাকে, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

টেলিভিশন জগৎ থেকে দূর দূর তার সম্পর্ক নেই, তাতে কি দিব্বি নিজের ফলোয়ার্স বাড়িয়ে চলেছেন রচনা ব্যানার্জির স্বামী। স্ত্রী ৯০ দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী।

শুধু বাংলা ইন্ডারস্ট্রী নয় তামিল, তেলেগু ও সাথে হিন্দি ইন্ডারস্ট্রিতেও কাজ করেছেন রচনা। ৯০এর দশকে প্রেসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় এর সঙ্গে জুটি বেঁধে অনেক ছবিতেই কাজ করেছেন তিনি। শুধু তাই নয় বলিউডে অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গেও কাজ করেছেন তিনি।

মা বাবার একমাত্র সিন্তান রচনা। বরাবরই সুন্দরী ছিলেন তিনি। বহু বিউটি কন্টেস্টে বিজয়িনী হন। মিস ক্যালকাটার খেতাবও যেতেন তিনি। তারপরেই শুরু হয় সিনেমার পর্দায় বিচরণ।

বেশ কয়েকটি সিনেমায় অভিনয়ের পরেই জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন অভিনেত্রী। তারপর পরিচালক সুখেন দাসের কথা মতো নিজের আসল নাম অর্থাৎ ঝুমঝুম ব্যানার্জি পাল্টে নিজের নাম রাখেন রচনা। এর পরেই ডাক আস্তে থাকে অন্যান্য ইন্ডাস্ট্রি থেকে।

দক্ষিণে অভিনেতা উপেন্দ্র ও চিরঞ্জীবের সঙ্গে জুটি বাঁধেন তিনি। তাদের জুটির প্রত্যেকটা সিনেমাই হিট হয়। এর পর অভিনেত্রী ওড়িশার নায়ক সিদ্ধার্থ মহাপত্রের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে অবোধ হন।

কিন্তু কিছুদিনের মধ্যেই তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। বিবাহ বিচ্ছেদের পর অভিনেত্রী ওড়িয়া ইন্ডাস্ট্রি থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন এবং বাংলাতেই চুটিয়ে কাজ করে করে যান। সেই সময় তিনি বুম্বাদার সঙ্গে জুটি বেঁধে প্রায় পর পর ৩৫টি বাংলা ছবিতে অভিনয় করেন।

অভিনেত্রীর জীবনে দ্বিতীয়বার প্রেম আসে। এরপর অভিনেত্রী তার বর্তমান স্বামী অর্থাৎ প্রবাল বসুর সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন। তাদের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

অভিনেত্রীর স্বামী টেলিভিশন জগতের না হলেও সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশ সজাগ থাকেন। নিত্যদিন ছবি নাহলে ভিডিও পোস্ট করতে থাকেন। ইতিমধ্যেই বেশ ফ্যান ফলোইংও বানিয়ে ফেলেছেন।

বেশ খোলা মেজাজেরই বলে মনে হয় তাকে। তার সোশ্যাল একাউন্ট একদিনের জন্য বন্ধ থাকে না বলে জানিয়েছেন অভিনেত্রী।