তিন দিনের এক সদ্যোজাতকে বাঁচালো একটি কুকুর, অবাক গোটা নেট দুনিয়া

আমরা আমাদের চারপাশের কিংবা দেশ-বিদেশের এমন অনেক ঘটনার কথা জানতে পারি যা নিমেষে মন ভালো করে দেয় আমাদের। সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে আমাদের কাছে কোনো কিছুই অজানা নয়।

হাজার হাজার ভাইরাল হওয়া ঘটনার মধ্যে এমন অনেক ঘটনা থাকে যা মন ছুঁয়ে যায়। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এমনই এক ঘটনা ভাইরাল হয়েছে যা মন ছুঁয়ে গেছে সকল নেটিজেনদের।

বর্তমান যুগে অনেকেই কুকুরকে বাড়ির পশু হিসেবে রাখেন। কুকুর হল একটি প্রভুভক্ত এবং পরোপকারী জীব। তবে যে সমস্ত কুকুরগুলো রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে বেড়ায় অর্থাৎ ‘স্ট্রীট ডগ’-দের বেশিরভাগ লোকজনই হেয়-জ্ঞান করে তাড়িয়ে দেয়।

অবশ্য যারা সত্যিই কুকুর ভালোবাসেন তারা তাদের জন্য অনেক কিছুই করেন। আমাদের সমাজে এই দু-ধরনের মানুষরাই আছেন। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় যে ঘটনাটি ভাইরাল হয়েছে সেটি আবারো প্রমাণ করলো কুকুর সত্যিই একটি পরোপকারী জীব।

ওমানের রাস্তায় একটি স্ট্রীট ডগ খাবারের জন্যে একটি ডাস্টবিনের চারিদিকে ঘুরে বেড়াচ্ছিল। তখনই কুকুরটি দেখতে পায় ডলফিন এর মধ্যে একটি ছোট্ট তিন দিনের সদ্যোজাত পড়ে আছে।

এরপরই কুকুরটি খাবার খোঁজে বদলে বাচ্চাটিকে মুখে করে নিয়ে গিয়ে একটি বাড়ির দরজার সামনে রেখে চিৎকার করতে শুরু করে। যতক্ষণ না ওই বাড়ির মালিক এসে দরজাটা খুলেছে ততক্ষণ কুকুর চেঁচিয়ে গেছে।

এ যাত্রায় সদ্যোজাত শিশুর প্রাণে বেঁচে যায়। কুকুর একটি পরোপকারী জীব সে তার কাজের মধ্য দিয়ে আবারও প্রমাণ করে দিল। এই ঘটনা দেখে অবাক হয়েছে গোটা নেট দুনিয়া। কুকুরটি আবারো প্রমাণ করে দিল তারা মানুষের থেকে অনেক বেশি বিশ্বস্ত।