পশ্চিমবঙ্গ সহ ৬ রাজ্যে দুঃস্থ শিশুদের চিকিৎসার জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন ক্রিকেট ঈশ্বর সচিন তেন্ডুলকর

Sachin Tendulkar
Sachin Tendulkar

ফের মানবিকতার পরিচয় দিলেন খেলোয়াড় সচিন তেন্ডুলকর। বাংলা সহ ছয় রাজ্যের একশো দুঃস্থ শিশুদের চিকিৎসার জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন মাস্টার ব্লাস্টার সচিন তেন্ডুলকার। এই বছরটি তে করোনা কারণে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা প্রায় নুইয়ে পড়ছে। বহুদিন ব্যাপী লকডাউন চলার ফলে বহুদিন কাজকর্ম বন্ধ ছিল। ফলে মানুষের আর্থিক অবস্থা খুব খারাপ। সম্প্রতি করোনা ভাইরাসের “থার্ড ওয়েভ” এর ফলে সক্রমন আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিদিন আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা লাফিয়ে বাড়ছে। পরিস্থিতি ক্রমশই যেন হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে। ভারত এই মুহূর্তে সারা বিশ্বে করোনা আক্রান্ত দেশের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। প্রথম স্থানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ১ কোটি ৩৫ লক্ষের বেশি ও তৃতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে আক্রান্ত ৬২ লক্ষ পেরিয়ে গিয়েছে।

দিল্লিতে সংক্রমন সংখ্যা বর্তমানে দাঁড়িয়েছে মোট ৫৭০,০০০ হাজার। এদিকে চলতি বছরে ভ্যাকসিন আসার কোনোই সম্ভাবনা নেই। ফলে, কবে এই মারণ রোগের প্রকোপ থেকে মুক্তি পাওয়া যেতে পারে তা নিয়ে প্রায় সবাই ধন্ধে। অবস্থায় সাহায্যে হাত বাড়ালেন কিংবদন্তি খেলোয়াড় সচিন তেন্ডুলকার।তার চ্যারিটি ফাউন্ডেশন ‘একরাম’ এই বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছেন। এই চ্যারিটি সংস্থার মাধ্যমে মহারাষ্ট্র, পশ্চিমবঙ্গ, অসম, কর্ণাটক, তামিলনাডু এবং অন্ধপ্রদেশের দুঃস্থ শিশুদের কাছে পৌঁছে যাবে চিকিত্সার সাহায্য। সচিনের দেশের যে সমস্ত দুঃস্থ পরিবারের শিশুরা নানান দুরারোগ্য রোগে ভুগছে এবং যাদের চিকিৎসা করানোর ন্যূনতম সামর্থ্য টুকু নেই, তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্যই এই বিশেষ উদ্যোগ।

প্রসঙ্গত, ইউনিসেফের (unicef) গুডউইল অ্যাম্বাসেডর মাস্টার ব্লাস্টার সচিন তেন্ডুলকার চলতি বছরে শিশুদিবসে অসমের করিমগঞ্জ জেলার মাকুন্দায় একটি হাসপাতালের মেডিকেল সরঞ্জাম দান করেন। এই হাসপাতালের ২০০০ দরিদ্র শিশু চিকিৎসা পাবে। পাশাপাশি এই ফাউন্ডেশন মধ্যপ্রদেশে তপশিলি সম্প্রদায়ের জন্য ও নানান পুষ্টিকর খাদ্য এবং পিছিয়ে পড়া দলিত সম্প্রদায়কে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন এই কিংবদন্তি খেলোয়াড়।