শুভেন্দুর দলবদল! অধিকারী পরিবারও কি এবার তৃণমূলের সাথে সম্পর্ক ত্যাগ করার পথে?

মেদিনীপুরের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটের বেশ খানিকটা বদল ঘটেছে বলা যায়৷ নন্দীগ্রাম আন্দোলোনের অন্যতম মুখ শুভেন্দু অধিকারীর তৃণমূলে ইস্তফা ঘিরে জল্পনা এখনও অব্যাহত৷ আনুষ্ঠানিকভাবে গেরুয়াশিবিরের সদস্য এখন তিনি৷ এই ঘটনার পর থেকেই মেদিনীপুর স্তব্ধ! মেদিনীপুরে অধিকারী পরিবার প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে রাজনীতির ময়দানে রয়েছে৷ তৃণমূলের সাথে এই পরিবারের সম্পর্ক বেশ ঘনিষ্ঠ ও একাধারে বেশ পুরোনোও৷ কিন্তু শুভেন্দু অধিকারী দলবদল করার পর থেকেই ছবিটা অন্যরকম৷ অধিকারী পরিবারের কাউকেই আর দেখা যাচ্ছে না মেদিনীপুরে তৃণমূলের কোনো সভাতে৷

শুভেন্দুকে বাদ দিলে তার বাবা শিশির অধিকারী কাঁথির তৃণমূল সাংসদ ও পূর্ব মেদিনীপুরের জেলা সভাপতি৷ শুভেন্দুর ভাই দিব্যেন্দু তমলুকের তৃণমূল সাংসদ! শুভেন্দুর অপর এক ভাই সৌমেন্দু কাঁথি পৌরসভার প্রশাসক৷ এমনকি তিনি নিজেও ছিলেন নন্দীগ্রামের বিধায়ক৷ সেই অধিকারী পরিবারের সাথে তৃণমূলের সম্পর্কে ধরল বিরাট মাপের ভাঙন৷ শুভেন্দু দল ছাড়ার পর থেকে দলের নানা কর্মসূচী থেকে নিজেদের সরিয়েছেন পরিবারের বাকি সদস্যরা৷ বিগত দু’দশকেরও বেশি সময় ধরে মেদিনীপুরের রাজনীতিতে আধিপত্য বিস্তারকারী অধিকারী পরিবার আজ তৃণমূলের থেকে মুখ ফেরাচ্ছেন হয়তো! শুভেন্দু বিজেপিতে যোগ দিয়েই বলেছেন তৃণমূলে পরিবারতন্ত্র চলে৷ সেই পরিবারতন্ত্র বজায় ছিল অধিকারী পরিবারেও,তাও এখন সমাপ্তির পথে৷

পায়ে লেগেছে বলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভায় অনুপস্থিত ছিলেন শিশির অধিকারী৷ দিব্যেন্দুও সাফ জানিয়ে দেন যে তিনি দিল্লিতে,যোগ দিতে পারবেন না সভায়৷ এর মধ্যে আজ বুধবার কাঁথিতে রয়েছে তৃণমূলের সভা,সেখানেও অধিকারী পরিবারের কেউ উপস্থিত থাকছেন না বলে সূত্র মারফৎ খবর৷

প্রসঙ্গত,বর্তমানে পূর্ব মেদিনীপুরে তৃণমূলের তরফে রয়েছেন ১২জন বিধায়ক৷ শুভেন্দুর সাথে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন কাঁথি উত্তরের বিধায়ক বনশ্রী মাইতি৷ এই দুই বিধায়কের দলবদলের পর এবার মাত্র বিধায়কের সংখ্যা দাঁড়াল মোট দশজন৷ পশ্চিম মেদিনীপুরের কোনো বিধায়ক গেরুয়াশিবিরে যাননি৷

তবে এখন প্রশ্ন উঠছে তবে কি মেদিনীপুরে তৃণমূলের শক্তি হ্রাস পেতে চলেছে? বিধানসভা ভোটের প্রাক্কালে শুভেন্দুর দলবদল নিঃসন্দেহে শাসকদলের বড়োরকম ক্ষতি,তবে অধিকারী পরিবারের বাকি সদস্যদের সাথে তৃণমূলের সম্পর্কে ইতি ঘটলে তৃণমূলের আধিপত্য নড়বড়ে হবে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ৷