“চাড্ডা-ফাড্ডা-নাড্ডা করে যে গালাগালি দেওয়া হল, তার পরিণতি খুব খারাপ হবে”, নাড্ডার কনভয়ে হামলা নিয়ে মমতাকে কটাক্ষ বিমানের

biman basu - mamata banerjee
biman basu - mamata banerjee

বৃহস্পতিবার বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা ডায়মণ্ড হারবারে পৌঁছেছিলেন একটি রাজনৈতিক কর্মসূচীতে যোগ দিতে৷ যাওয়ার পথে শিরাকোল ,সরিষা সরংহ আরও বিভিন্ন জায়গায় নাড্ডার কনভয় আটকানো হয় এবং হামলা করা হয় বলে অভিযোগ৷ অভিযোগ ওঠে শাসকদলের বিরুদ্ধেই৷ এ নিয়ে বিতর্ক তৈরী হয় রাজনৈতিক মহলে৷ শাসকদলের আশ্রিত গুণ্ডারাই কনভয়ে হামলা চালায় বলে অভিযোগ বিঝেপি নেতৃত্বের৷

এবার এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানালেন বাম নেতা বিমান বসু৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্প্রতি একটি সভাতে দাঁড়িয়ে সরাসরি কটাক্ষ করেছেন বিজেপিকে৷ পাশাপাশি তোপ দেগেছেন কেন্দ্রীয় সরকারকেও৷ মুখ্যমন্ত্রী ধর্মতলায় তৃণমূলের একটি কৃষক সভায় বলেন,”কোনোও দিন হোম মিনিষ্টার আসেন,কোনোদিন অন্য এক মিনিষ্টার চলে আসছে৷লোকের কাজ তো করে না! চাড্ডা—ফাড্ডা—নাড্ডা—গাড্ডা—ভাড্ডা সব চলে আসছে এক এক করে৷” এ প্রসঙ্গে বাম নেতা বিমান বসু পাল্টা দেন মমতাকে৷ তিনি বলেন,”চাড্ডা ফাড্ডা নাড্ডা গাড্ডা ছন্দ মিলিয়ে কথা বলতে গিয়ে যে গালাগালি দেওয়া হল,তার পরিণাম খুব খারাপ হবে৷ “৷ বিমান বসু এও বলেন যে এটি জাতীয় সংহতির পক্ষে বিপজ্জনক৷

অন্যদিকে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও গতকাল একটি প্রেস কনফারেন্সে সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেন যে “তিনি সংবিধানের পালন করছেন না৷” রাজ্যপাল এও বলেন যে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী যদি সংবিধান না মানেন তাহলে রাজ্যপালের ভূমিকা শুরু হবে৷ বিমান বসু এ প্রসঙ্গে রাজ্যপালের বক্তব্যকে সমর্থন জানিয়ে বলেন ,”সংবিধান অনুযায়ী শপথবাক্য গ্রহণ করতে হয়,তার মান্য করলেই রাজ্যপালকে আর কথাগুলো বলতে হয় না৷”

এছাড়াও জেপি নাড্ডার কনভয়ে হামলার প্রসঙ্গে মমতা আঙুল তুলেছেন বিজেপির দিকেই৷ ধর্মতলার সভাতে দাঁড়িয়ে বলেন,”ওরাই শুধু অনুষ্ঠান করবে,আর কেউ করবে না৷আর যেদিন অনুষ্ঠান করবে সেদিন লোক সাজিয়ে নিয়ে আসবে৷ন্যাশনাল নিউজে দেখাবে বড়ো করে৷ নটাঙ্কি৷” মুখ্যমন্ত্রীর এহেন ভাষা নিয়ে সমালোচনা করেন বিমান বসু৷ তিনি বলেন,”আমাদের রাজ্যে যেমন মুখ্যমন্ত্রী তেমন তো ভাষা হবেই! উনি নাকি ভাষাবিদ! আজ অবধি শুনলাম না গর্ভমেন্ট,বলে গরমেন্ট! তিনি ইংরাজী ভাষায় কীভাবে কথা বলতে হয় জানেন না৷”

এছাড়াও বিমানবাবু বলেন,” চাড্ডা মানে পাঞ্জাবী,পাঞ্জাবী ছাড়া চাড্ডা হয় না৷” পাশাপাশি ৯টি বিধানসভা কেন্দ্রে ভোটার তালিকায় অস্বচ্ছতা নিয়েও বিমান বসু অভিযোগ তোলেন রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে৷ সাংবাদিকদের তিনি জানান যে মৃতদের নাম ভোটার তালিকাতে রেখে দেওয়া হচ্ছে ৷ জনগোষ্ঠীর বৃদ্ধির সাধারণ হারের থেকে দ্বিগুণ,তিনগুণ,পাঁচগুণ ভোটার বাড়ছে৷

ভোটার তালিকা স্বচ্ছ না হলে ভোটের ফলাফলে অসামঞ্জস্য তৈরী হবে৷ “ছেড়ে কথা বলব না,কিছু হলে রাস্তায় বসব” বলে হুঁশিয়ারি দেন এদিন বিমান বসু৷