উত্তরকন্যা অভিযানে পুলিশের ছররা বন্দুকের ব্যবহার,বিস্ফোরক টুইট বিজয়বর্গীয়ের

সোমবার বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযানকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে শিলিগুড়ি৷ শিলিগুড়ির বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দলে দলে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা অভিযানে যোগ দেন৷ বেকারত্ব সমস্যা ,করোনা দুর্নীতি সহ আরও নানা অভিযোগে বিজেপি এদিন উত্তরকন্যা অভিযানের ডাক দেয়৷ মিছিলে সেদিন ছিলেন বিজেপির সামনের সারির নেতৃত্ব৷ পুলিশ ব্যারিকেড দিয়ে বিজেপিকে আটকানোর চেষ্টা করলে তারা ব্যারিকেড ভেঙে এগিয়ে যায় ৷

পুলিশের সাথে বেঁধে যায় খণ্ডযুদ্ধ৷ আর এর ফলেই উলেন রায় বলে বছর পঞ্চাশের এক বিজেপি কর্মীর মৃত্যু হয় বলে অভিযোগ বিজেপির তরফে৷ শিলিগুড়ির একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলেও তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন ডাক্তাররা৷ এরপর থেকেই পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের কার্যকলাপ দাঁড়ায় প্রশ্নের মুখে৷ বিজেপির তরফে অভিযোগ যে পুলিশের গুলি লেগেই মৃত্যু হয় ওই ব্যক্তির৷ আজ সকালে কৈলাশ বিজয়বর্গীয় টুইট করে একটি ভিডিও শেয়ার করেন,সেখানে দেখা যাচ্ছে যে পুলিশ ছররা বন্দুকে গুলি ভরছে৷ ভিডিওটি রীতিমতো শোরগোল ফেলে দিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে৷

টুইট করে বিজয়বর্গীয় মমতার পুলিশকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন৷ উলেন রায় মৃত্যু হয়েছে পুলিশের শটগানের গুলিতেই —অভিযোগ বিজেপি নেতৃত্বের তরফে৷ পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের তরফে দাবী , সেদিন উত্তরকন্যা অভিযানে বিজেপি হিংসাত্মক ক্রিয়াকলাপ করেছে,সরকারি সম্পত্তির ক্ষতি করেছে৷ পুলিশ সংযমী হয়েছে অনেক,দাবী তৃনমূল সাংসদের৷

তবে বিজয়বর্গীয়ের শেয়ার করা ভিডিওটি রীতিমতো বিতর্ক সৃষ্টি করেছে৷ মৃত বিজেপি কর্মীর প্রাথমিক ময়নাতদন্ত করা হয়েছে মধ্যরাতে পরিবারের থেকে বলপূর্বক সাক্ষর নিয়ে,অন্তত এমনটাই দাবী ওই ব্যক্তির পরিবারের৷ এছাড়াও সেদিন অভিরানের পর স্থানীয় অনেক বিজেপি কর্মী নিজেদের বাড়ি ঢুকতে পারেনি বলে অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে৷

বিজয়বর্গীয়ের শেয়ার করা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে ছররা বন্দুকে গুলি ভরছে পুলিশ,কিন্তু পুলিশের দাবী সেদিন তারা ছররা বন্দুক ব্যবহার করেননি৷ তাদের আরও দাবী যে ব্যক্তির গায়ে গুলি সামনে থেকে লাগেনি৷ কিন্তু বিজেপি নেতৃত্ব আর স্থানীয়দের দাবী গুলি লেগেছে সামনে থেকেই৷ আবারও ময়নাতদন্ত না হলে এবার বিজেপির সুপ্রিম কোর্ট অবধি যাওয়ার হুশিয়ারি৷