পিকের টিম নিয়ে অসন্তোষ মদনের,পরিবহণকর্মীদের জন্য বিশেষ কমিটির চেয়ারম্যান মদন মিত্রই

madan mitra prashan kishore-compressed
madan mitra prashan kishore-compressed

নির্বাচনের আগে প্রতিটি রাজনৈতিক দলই নিজেদের মতো করে গুটি সাজাচ্ছে৷ লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির কিছু আসন সংখ্যা বৃদ্ধির ফলে স্ট্র্যাটেজি পরিবর্তন করছে শাসকদলও৷ ২১—এর বিধানসভাতে তারাই যাতে আবারও সরকার গঠন করতে পারে তার জন্য প্রস্তুতিতে কোনো ফাক রাখতে চান না মুখ্যমন্ত্রী৷ ইতিমধ্যে শুভেন্দু অধিকারী পদত্যাগ চিন্তার ভাঁজ ফেলেছিল দলের মাথায়৷ তাকে ফেরাতে পিকের টিমের সাথে তৎপর হয়েছিলো প্রথম সারির তৃণমূলের নেতৃত্ব৷ শেষমেষ দল ছাড়েননি শুভেন্দু৷ কিন্তু প্রশান্ত কিশোরের হাতে দল পরিচালনার ভার তুলে দেওয়ায় শুভেন্দুর পাশাপাশি অসন্তোষ বেশ কয়েকজন নেতারা৷ মদন মিত্র সরাসরি তার ক্ষোভ উগড়ে দেন সোমবার৷ তার বক্তব্য , কামারহাটির মানুষদের কীভাবে পাশে পাবেন এটা তিনি প্রশান্ত কিশোরের থেকে শিখতে রাজি নন৷

মদন মিত্রও যে পিকে টিমের ওপর অসন্তুষ্ট ,তা তার জবানে পরিষ্কার৷ এর পাশাপাশি তিনি তোলেন লিফট প্রসঙ্গও৷ এই সূত্রে বলেন যে কথায় কথায় তিনি মালদা বা মুরশিদাবাদ যান না কিংবা চপারে করে কলকাতা ছাড়ার মতো ভাগ্য তার নেই৷ সুতরাং মদন মিত্র যে নিজের দমে কামারহাটির মানুষের আর্শীবাদ পেতে পারেন ,ভালোবাসা পেতে পারেন তা তিনি সাফ বুঝিয়ে দিলেন৷

ঠিক এরপরেই শোনা যায় যে এক বিশেষ দায়িত্ব দেওয়া হয় মদন মিত্রকে৷ খাদ্যসাথী ,স্বাস্থ্যসাথী ইত্যাদি বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পের সুবিধা যাতে রাজ্যের সমস্ত পরিবহণকর্মীরা পায় সেই বিষয়ে খতিয়ে দেখার জন্য গঠন করা হল এক বিশেষ কমিটি৷ কমিটির চেয়ারম্যান করা হল মদন মিত্রকে৷ বুধবার পরিবহণ দফতর থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়,সেখানে জানানো হয় যে রাজ্যের বেশিরভাগ পরিবহণ কর্মী সরকারি প্রকল্পের সুবিধা পাচ্ছেন না৷ তারা প্রত্যেকে যাতে প্রকল্পগুলির সমান সুবিধা পায়, তার জন্যই গঠন করা হয়েছে এই বিশেষ কমিটি৷ কমিটির কাজই হবে যাতে যকল পরিবহণ কর্মী সমানভাবে প্রকল্পগুলির উপভোক্তা হন৷

নবগঠিত এই কমিটি সরকারের সাথে কথা বলবে,সমন্বয়ের মাধ্যমে পরিবহণ দফতরের বিজ্ঞপ্তিতে উল্লিখিত অভিযোগও দেখবে খতিয়ে৷মদন মিত্রকেই দেওয়া হল চেয়ারম্যানের পদ৷ একসময়ে রাজ্যের পরিবহণ দফতর সামলেছেন অত্যন্ত দক্ষতার সাথে৷ তাই দলের তরফে মনে করা হচ্ছে যে এই নতুন দায়িত্বটি সামলানোর জন্য মদন মিত্রই যোগ্য ব্যক্তিত্ব৷

তবে মদন মিত্রের গলায় সোমবার শোনা যায় অন্যরকমের ইঙ্গিত৷তিনি বলেন,”দলে এখন মেকাপ তোলার কাজ চলছে৷” দিন কয়েক আগে তিনি চায়ের কাপ হাতে নিয়ে একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে ক্যাপশনে লেখেন “টাইম ফর প্যাক আপ”৷ এরপর থেকেই শুরু হয় নানান জল্পনা৷

শুভেন্দুর প্রসঙ্গেও মদন বলেন যে শুভেন্দুর সাথে তার অত্যন্ত ভালো সম্পর্ক এবং তিনি তাকে বলতে চান যে নির্দল হয়ে কামারহাটিতে দাঁড়াতে৷ জনপ্রিয়তার খেলা আসলে বিপদের এবং দড়ি বেশি টানলে ছিঁড়ে যায় ৷ 0দল সম্পর্কে মদন মিত্রের এহেন মন্তব্য বিরূপ মনোভাবের ইঙ্গিত দেয় হয়তো৷