শুভেন্দু বিজেপিতে যোগ না দিলেও মোদির নেতৃত্বে বাংলায় সরকার গড়বে বিজেপি: বিজয়বর্গীয়

রাজনৈতিক মহলে বেশ কিছুদিন ধরেই চলছে তুমুল জল্পনা ,প্রশ্ন উঠছে শুভেন্দু অধিকারী কি তৃণমূলেই থাকছেন নাকি যোগ দিতে চলেছেন বিজেপিতে? মঙ্গলবার সন্ধ্যের পরেই স্পষ্ট জানা যায় যে শুভেন্দু থাকছেন তার দলেই ৷ উল্লেখ্য, তিনি মন্ত্রীত্ব থেকে পদত্যাগ করলেও দল যে ছাড়েননি একথা সোচ্চারেই জানিয়েছিলেন৷ সেই সিদ্ধান্তেই অনড় থাকলেন প্রাক্তন পরিবহণ মন্ত্রী৷

তৃণমূলের নেতৃত্ব এ বিষয়ে প্রকাশ্যে কিছু না জানালেও এদিন উত্তর কলকাতার একটি জায়গায় শুভেন্দুর সাথে বৈঠকে বসেন সৌগত রায়, অভিষেক বন্দোপাধ্যায় এবং পিকের টিম সহ একাধিক নেতারা৷ বৈঠকে আলোচনার পরেই সৌগত রায় জানান যে শুভেন্দু থাকছেন কার্যত দলেই৷ এই সিদ্ধান্ত কি রাজ্য বিজেপির কাছে এক বড়ো ধাক্কা? শুভেন্দুর পদত্যাগের পর থেকেই মনে করা হচ্ছিলো যে তিনি আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে থাকবেন বিজেপির পক্ষেই৷ নন্দীগ্রামের বিধায়কের দলেই থাকার সিদ্ধান্ত বঙ্গবিজেপির কাছে কি ছিলো একেবারেই অপ্রত্যাশিত? এই সূত্রে বিজেপির রাজ্য সভাপতি কৈলাশ বিজয়বর্গীয়ের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন,”শুভেন্দুর সব ক্ষোভ ছিল ভাইপোর ওপরে৷” অর্থাৎ অভিষেক বন্দোপাধ্যায় যেভাবে রাজ্যের সিন্ডিকেট রাজত্বকে সমর্থন করছিলেন তা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছিলেন না শুভেন্দু,তাই হয়তো পদত্যাগের সিদ্ধান্ত৷

তার বক্তব্য মমতাকে তার ভাইপো সম্পর্কে সতর্ক করতে চেয়েছিলেন শুভেন্দু৷ সিন্ডিকেটকে মদত দিচ্ছিলেন অভিষেক , শুভেন্দু মমতাকে বলেছিলেন তাকে আটকাতে৷ তবে এতে কোনো কাজ না হওয়াতে তিনি অসন্তুষ্ট হন শুভেন্দু৷ বিজয়বর্গীয় আরও বলেন যে সৌগত রায় শুভেন্দুর হয়ে কথা বলছেন কেন? শুভেন্দু তার দলে থাকার বিষয়ে নিজে মুখ বন্ধ রেখেছেন কেন?
এমন নানা প্রশ্নের তির ধেয়ে আসছে মঙ্গলবার সন্ধ্যের পর থেকে৷

তবে শুভেন্দু যে পদত্যাগ করে বিজেপিতেই আসতে চলেছেন এ নিয়ে কার্যত বিশ্বাসী ছিলেন রাজনৈতিক মহলের অনেকাংশ৷ আরএসএস—এর প্রধান মোহন ভাগবতের সাথেও নাকি শুভেন্দুর দেখা করার কথা শোনা গিয়েছিল ৷ তবুও শেষমেষ সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে শুভেন্দুর দলেই থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত কি বিজেপির কাছে দুঃসংবাদের সমান হয়ে দাঁড়ালো?

এ প্রসঙ্গে বিজয়বর্গীয় স্পষ্টতই জানিয়ে দেন যে শুভেন্দু মাটির নেতা,তিনি বিজেপিতে এলে হয়তো বাংলায় বিজেপির অবস্থান আরও শক্ত হত কিন্তু না এলেও ক্ষতি নেই, তারা বাংলায় একইরকম শক্তিশালী থাকছেন৷ অর্থাৎ শুভেন্দুর বিজেপিতে যোগ না দেওয়া কোনো কমতি হয়ে দাঁড়াবে না,বরং মোদির নেতৃত্বেই বাংলায় বিজেপি সরকার গড়বে তা জানিয়ে দেন বিজেপির সর্বভারতীয় নেতা৷