গেরুয়া টেমপ্লেটে “বন্ধু দেখা হবে?” জল্পনা শীলভদ্রের ফেসবুক পোস্ট নিয়ে

শুভেন্দু অধিকারীর পদত্যাগ ঘিরে দীর্ঘদিন ধরে চলছিল জল্পনা৷ শেষমেষ তার ইস্তফার পরই তার বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সম্ভাবনা তীব্রতর হয়ে উঠেছিল৷ তবে শুভেন্দু নিজে এ ব্যাপারে মুখ খোলেননি৷ গতকাল উত্তর কলকাতার টাউন হলের পিছনে চারতলার এক বিল্ডিং—এ বেশ কিছুক্ষণ বৈঠক করেন শুভেন্দু—সৌগত সহ অভিষেক ব্যানার্জী আর পিকের টিম৷ এই বৈঠকের পরেই জানা যায় যে শুভেন্দু মানভঞ্জনে সক্ষম হয়েছে তৃণমূল নেতৃত্ব৷ কিন্তু ঘরের মধুরেণ সমাপয়েৎ হয়েও রয়ে গেল অধরা৷ বুধবার দুপুরেই শুভেন্দু হোয়াটসআপ বার্তার মাধ্যমে সৌগত রায়কে জানিয়ে দেন যে তার পক্ষে আর একসাথে কাজ করা সম্ভব নয়৷ এরপরই রাজনৈতিক মহলে আবারও শুরু হয়েছে জল্পনা৷

আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের আগে গুটি সাজানোর জন্য যখন তৃণমূল মরিয়া তখনই শোনা গেল শীলভদ্রের বার্তা৷ বেশ কিছুদিন ধরে ব্যারাকপুরের বিধায়ক শীলভদ্রকে নিয়েও চলছিলো চাপানউতোর৷ শীলভদ্র ভোটে তৃণমূলের হয়ে দাঁড়াবেন না একথা সাফ জানানোর পরই ভোটকুশলী পিকেরূ টিম পৌঁছে যায় তার বাড়িতে,এ ব্যাপারে তিনি হয়ে ওঠেন বেশ ক্ষুদ্ধ৷ বলেন,”দলের লোক এলে আরও ভালো হত”৷ অর্থাৎ পিকের টিমের প্রতি যে নেতাদের আক্রোশ বাড়ছে ,শীলভদ্রের গলায় সেই সুর স্পষ্ট৷ গতকাল বিধায়কের বাড়িতে এরপর পৌঁছে যান জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক৷ কিন্তু সাক্ষাৎ হয় না তাদের৷ সূত্র মারফৎ জানা যায় যে পরে তাদের সাক্ষাৎ ঘটে অন্য কোনো এক জায়গায়৷ শেষমেষ মানভঞ্জন হল কিনা তা অবশ্য এখনও ধোঁয়াশাই৷

তবে এরপরেই দেখা যায় ফেসবুকে শীলভদ্র দত্তের একটি পোস্ট,তাতে লেখা —”বন্ধু দেখা হবে”৷ পোস্টটি তিনি লেখেন গেরুয়া রঙের টেমপ্লেটে,রঙটি নিয়ে যথারীতি শুরু হয়েছে চর্চা৷ তবে কি এবার শুভেন্দুর মতো তিনিও দিতে চলেছেন ইস্তফা? ভোটের আগে গৃহযুদ্ধে সরগরম শাসকদল৷ ক্রমেই বাড়ছে জল্পনা৷ মুকুল রায় তৃণমূলে থাকাকালীন শীলভদ্রের সাথে ছিল হৃদ্যতা৷তবে কি মুকুল রায়ের পথেই হাঁটতে চলেছেন শীলভদ্র? প্রশ্ন উঠছে৷

একদিকে শুভেন্দু ,আরেকদিকে শীলভদ্র৷ তৃণমূলে ভোটের আগে ঘর যে ভাঙছে সে ছবি স্পষ্ট৷ শুভেন্দুর পদত্যাগের দিনই শীলভদ্র বলেছিলেন যে তিনি শুভেন্দুর ফ্যান,যা করেছে তা ঠিক৷  এই বক্তব্য থেকে দলের বিপক্ষে এক অবস্থান যেন ইঙ্গিতব্য হচ্ছে৷  আগামী নির্বাচনের পরিপ্রেক্ষিতে শীলভদ্র বলেন,”দশ বছর যা করতে পারিনি,তা আমার অপদার্থতা বলেই মনে করি৷”
সুতরাং ভোটের বাদ্যি বাজতে না বাজতেই পদত্যাগের ঝড় উঠেছে তৃণমূলে৷তবে কি শুভেন্দুর পর এবার শীলভদ্র?