দুয়ারে সরকারের পর এবার “পাড়ায় পাড়ায় সমাধান” কর্মসূচি, ছোট সমস্যা মেটাতে নয়া প্রচেষ্টা

বিধানসভা নির্বাচনের আগে নিজেদের ঘাঁটি আরও শক্ত করতে এবং পুনরায় বাংলার ক্ষমতায় আসতে শাসকদল বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছে,জনসংযোগকে দৃঢ় করতে হাতিয়ার হচ্ছে প্রকল্প৷ রাজ্য সরকারের তরফে ঘোষিত হয়েছে প্রভূত প্রকল্প৷ সরকারি প্রকল্পের সুবিধা বোঝাতে প্রতিনিয়ত চলছে প্রচার৷ চলতি মাসের ১তারিখ থেকে শুরু হয়েছে “দুয়ারে সরকার” কর্মসূচি৷ তাতে মিলেছে ব্যাপক সাফল্য৷ এবার আরেকটি নয়া কর্মসূচির ঘোষণা করলেন রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান৷ এটির নাম “পাড়ায় পাড়ায় সমাধান”৷ তবে এটি বড়ো মাপের কোনো প্রকল্প নয়,পাড়ায় পাড়ায় ছোটখাটো যেসমস্ত সমস্যা থাকে সেগুলি সমাধানের চেষ্টা হবে এই কর্মসূচিতে৷ বোলপুরের প্রশাসনিক বৈঠকে “পাড়ায় পাড়ায় সমাধান” কর্মসূচির কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

কি হবে এই কর্মসূচীতে? কীভাবে পাড়ায় পাড়ায় পৌঁছে দেওয়া হবে পরিষেবা তা নিয়ে বিস্তারিত জানান মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তার মুখে শোনা যায় আশার কথা! তিনি বলেন, কখনও কখনও কোনও এলাকার স্কুলে কাসরুমের দাবী থাকে,কোনো এলাকায় শৌচালয় প্রয়োজন হয় আবার গ্রামের দিকে আম্বুলেন্সের অভাবে পরিষেবা পাননা সাধারণ মানুষ,কোনও অঞ্চলে জলের পাইপ থাকলেও ঠিকমতো মেলে জলের পরিষেবা,কোথাও আবার কালভার্ট তৈরী করে দেওয়ার দাবী থাকে!

মূলত এইসমস্ত ছোটখাটো সমস্যার সমাধান করা হবে এই নতুন কর্মসূচির মাধ্যমে৷ এর জন্য টাস্ক ফোর্স গঠিত হয়েছে৷ আগামী বছরের ২রা ফেব্রুয়ারি থেকে ১৫ই ফেব্রুয়ারি চলবে এই কর্মসূচি৷দেড় মাসের মধ্যে সমস্যা সমাধানের প্রাথমিক পর্যায়ের কাজ কমপক্ষে শুরু করা হবে বলেই ঠিক করা হয়েছে৷ আগেও দুয়ারে সরকার কর্মসূচিতে স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড সহ আরও কিছু পরিষেবা মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার কাজ চলছে৷

এই প্রকল্পে ভালোরকম সাড়া পেয়েই ঘোষিত হল পাড়ায় পাড়ায় সমাধান৷ মূলত মিউনিসিপ্যালিটির বকেয়া কাজ এর মাধ্যমে করা হবে৷ তবে এই প্রকল্প তৃণমূলের পক্ষে ভোট বাড়াবে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল৷