একটা পুরসভা সব পাবে, আর বাকিরা শুধু ভোট দিয়ে যাবে, তা হয় না! সব চামচা-বেলচা, তীব্র ক্ষোভ জিতেন্দ্র’র

জিতেন্দ্র বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রীর ডাকা বৈঠকে যাব। ওঁকে দেখে দল করা। আমি যে সমস্যা অনুভব করেছি, সেটা জানাব। তারপর যদি সমাধান হয়, ভাল। অন্তত এটুকু বলতে পারব, আমি মনের কথা খুলে বলতে পেরেছি। আমি ইতিবাচক মানসিকতা নিয়ে যাব।’

বলে দেন, ‘একটা পুরসভা সব পাবে, আর একটা শুধু ভোট দিয়ে যাবে, তা হয় না। মানুষের কাছে জবাব দিতে হয় আমাদের।’

জিতেন্দ্র জানান, তাঁকে সুব্রত বক্সী ‘টেক্সট’ করেছেন। কিছুদিন পর্যন্ত মিটিং-জনসভা করতে বারণ করা হয়েছে। ববি কী বলেছেন তা তিনি জানেন না। এর পরই খানিকটা যেন আবেগপ্রবণ সুরে জিতেন্দ্র বলেন, ‘দিদি এটা পুরোটা জানেন কিনা জানি না। মন বলছে, দিদি জানেন না। কিন্তু পরে যদি দেখি, দিদি জানেন, তবু আমাকে এই ‘টেক্সট’ করা হয়েছে, তা হলে খুব কষ্ট পাব।’