টান টান সুন্দর ত্বক চান, ব্রেকফাস্টে কয়েকটি হেলদি জুসই দেখাবে ম্যাজিক

ত্বকের যত্নে এবার ঘরোয়া খাবারেই ভরসা রাখুন। ব্রেকফাস্টে বাড়িতে তৈরি এই জুস দিয়েই নিজের ত্বককে রাখু তরতাজা। মেনুতে রাখবেন কী কী জুস, জেনে নিন…

আদা ও লেবুর রস: খেতে পারেন আদা ও লেবুর রস ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে ও শরীরে যাবতীয় মিনারেলের জোগান বাড়াতে সাহায্য করে এই জুস।

টমেটোর জুস: টমেটো প্রচুর পরিমান অ্যান্টিঅক্সিডেন্টযুক্ত হয় যা বলিরেখা, চামড়া কুঁচকে যাওয়া, বয়সের ছাপের মতো ত্বকের নানা সমস্যা কমানোর জন্য আদর্শ। ত্বকের পোড়স বড়ো হলে টা কমায়, সিবাম ও ট্যানের সমস্যা অপসারণ করে এই জুস। তাই বিয়ের আগে ত্বকের প্রাকৃতিক উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনতে টমেটোর জুস খান।

শশার রস: ত্বক ভালো রাখতে শশার উপকার কারোর অজানা নয়। ত্বক প্রাকৃতিকভাবে ময়শ্চারাইজ করে খান এক গ্লাস ফ্রেশ শশার রস। শরীরে জলের ভারসাম্য বজায় রাখে ও ত্বক হাইড্রেট করতেও সাহায্য করে এই রস।

গাঁজর ও বীটের জুস: গাঁজর ও বীটের জুস শুধুমাত্র ত্বক নয় শরীরের জন্য খুব উপকারী। বীটে আছে পটাশিয়াম, জিঙ্ক, ম্যাঙ্গানিজ ও ভিটামিন সি এর মতো পুষ্টিগুণ যা আপনার ত্বক উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে। গাঁজর ভিটামিন এ সমৃদ্ধ যা ব্রণ, বলিরেখা, অসমান ত্বক ও চামড়ার কালো ছোপ দূর করে আপনাকে দেয় উজ্জ্বল ও সতেজ ত্বক। এছাড়া এই জুস ফাইবার সমৃদ্ধ হওয়ায় শরীর থেকে টক্সিন পরিষ্কার করে।

পালং শাকের স্মুদি: এই সবুজ শাকটির স্মুদি আয়রন, ভিটামিন কে, ভিটামিন সি, ভিটামিন ই, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ম্যাঙ্গানিজযুক্ত হওয়ায় ত্বকে আনে নিখুঁত লাবণ্য।

বেদানার রস: রক্ত পরিশুদ্ধ করে ত্বকের পুষ্টি বাড়াতে ও ন্যাচারাল গ্লো ফিরিয়ে আনতে খান এক গ্লাস বেদানার রস।ত্বকের উপর বয়সের ছাপ কমানোর জন্য আদর্শ এই জুস।

পেঁপের জুস: পেঁপে এনজাইম সমৃদ্ধ হওয়ায় ত্বকের ময়লা পরিষ্কার করতে ও ভিতর থেকে ত্বক উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে। প্রতিদিন এই ফলের রস খেলে ত্বক হবে নরম, মসৃণ ও উজ্জ্বল।