নিউটাউন খুনে নয়া মোড়! ফেসবুকে আলাপ, চাকরীর লোভ দেখিয়ে কুপিয়ে খুন?

মঙ্গলবার সন্ধ্যে আটটা নাগাদ নিউটাউনে ডিডি ব্লকের একটি হোটেল থেকে উদ্ধার হয় এক মহিলার রক্তাক্ত নগ্ন দেহ৷ প্রাথমিক তদন্তে নিউটাউন টেকনোসিটি থানার পুলিশের তরফে জানানো হয় যে ওই মহিলাকে খুন করা হয়েছে ভাঙা মদের বোতল দিয়ে৷ শরীরে একধিক জায়গায় মেলে ক্ষত৷ অভিযুক্ত পলাতক,তাকে এখনও খুঁজছে পুলিশ৷ এবার এই ঘটনায় এল নয়া মোড়!

জানা গেছে ফেসবুকে ওই মহিলার সাথে আলাপ যুবকের৷ তাকে চাকরী দেওয়ার নাম করে কলকাতায় নিয়ে আসা হয়৷ মৃতার নাম চুমকি ঘোষ৷ মৃতার পরিবারের তরফে জানানো হয় যে এ বিষয়ে দাদার সঙ্গেও কথা বলেছিলেন ওই যুবক৷ সূত্র মারফৎ আরও খবর যে মঙ্গলবার সকাল ৭:৩০টা নাগাদ বাড়ি থেকে বের হয় ওই দু’জন৷ দুপুর একটা নাগাদ নিউটাউনের হোটেলে আসে তারা৷

তবে ঠিক কি কারণে খুন তা জানা যায়নি এখনও৷ মৃতদেহের পাশে পাওয়া গেছে একটি চিরকুট,তাতে লেখা,”তোকে আমি মারতে চাইনি,মারতে বাধ্য হলাম৷” হোটেল তরফে জানানো হয়েছে যে খুনের সময় কোনো চিৎকার শোনা যায়নি৷ কারণ জোরে টিভি চলছিল ঘরে৷ মহিলার গলায় চার্জারের তার পেঁচানো ছিল৷

তবে এখনও অধরা যে ওই মহিলা কেনই বা এতদূরে এলেন যুবকের সাথে! মহিলার দেহ পাঠানো হয়েছে ময়না তদন্তে৷ ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞরা জানান, চুমকি ঘোষের গলায় চার্জারের তার পেঁচানো হয়েছিল৷ খাস নিউটাউনের মতো জায়গায় এই নৃশংস খুনের কাহিনীতে কার্যত স্তব্ধ গোটা এলাকা৷ চাঞ্ছল্য ছড়িয়েছে ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই৷ খুনের মোটিভ খুঁজতে এবার তৎপর পুলিশ৷