“প্রধানমন্ত্রীকে বলবো, নিজের চেয়ারের সম্মানটা রাখুন”, নয়া কৃষিআইন নিয়ে মমতার তোপ মোদিকে

মঙ্গলবার রাজ্যসভায় পাশ হয়ে গেল কৃষিবিল৷ সারাদেশ এই মুহুর্তে উত্তাল কৃষিবিল নিয়ে৷ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে হয়ে চলেছে প্রতিবাদ৷ কৃষি আইনের বিরোধীতা করে ধর্মঘট করছে কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠনগুলি৷ কৃষকদের প্রতিবাদ আন্দোলোন বিশাল এক চেহারা নিচ্ছে গোটা দেশজুড়ে৷ এই প্রসঙ্গে এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় তীব্র নিন্দা করেন কৃষি বিলের৷ মোদিকে নিশানা করে বলেন যে বিজেপিতে যারা আগে ছিলেন তারা কখনও কৃষকবিরোধী কাজকে সমর্থন করতেন না৷ আর এখন মোদির সরকারই এমন এক বিল এনেছেন যা কৃষকদের স্বার্থবিরোধী৷

সারা দেশে কৃষকদের আন্দোলোন থেকে দাবী উঠছে এই মুহুর্তে প্রত্যাহার করা হোক নয়া কৃষিবিল৷ এর সাথে সুর মেলান মমতাও৷ এই আইন যে কার্যত কৃষকদের বিপক্ষ এক অবস্থান নেয় এবং তারাই যে সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবে তা নিয়ে মোদিকেই কাঠগড়ায় তোলেন মুখ্যমন্ত্রী৷

নবান্ন থেকেই এদিন তিনি জোর গলায় একেরপর এক আক্রমণ করেন মোদি সরকারকে৷ করোনা ভ্যাকসিন ডিসেম্বরেই আসছে এমন প্রতিশ্রুতি দিয়ে কেন এখনও সেই ভ্যাকসিন পৌঁছালো না ভারতবাসীর কাছে — তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন৷ পাশাপাশি রাজীব গান্ধীর সাথে তুলনা টেনে বলেন যে মোদির চেয়ে বেশি আসন নিয়ে রাজীব গান্ধী সরকার গড়েছিলেন একসময়ে,কিন্তু কখনও কৃষকবিরোধী কাজ করেননি৷ মমতা বলেন যে দেশের চাষীরা ভালো থাকুক সেটাই তিনি সর্বোপরি চান কিন্তু এই নয়া কৃষিআইন আসলে কৃষকবিরোধী৷

আসন্ন নির্বাচনে যে কৃষিআইনকেই একটা বড়ো ইস্যু করতে চাইছে তৃণমূল সরকার,তা খানিক স্পষ্ট৷ নবান্ন থেকে এদিন নেত্রী তোপ দাগেন মোদি সরকারকে৷ কয়েকদিন আগেই গলার সুর চড়িয়ে মমতা বলেছিলেন যে কৃষি আইন বাতিল করতে তৃণমূল কংগ্রেস দিল্লি পর্যন্ত যেতে প্রস্তুত৷ মঙ্গলবার সরাসরি মোদিকে নিশানা করে তিনি বলেন,”প্রধানমন্ত্রীকে বলবো,আপনার চেয়ারের সম্মানটা রাখবেন৷” কৃষকদের কথা মাথায় রেখে কৃষিবিল নিয়ে সরব মমতা৷ এসব না করে বরং করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে মুখ খুলুক কেন্দ্র — বক্তব্য মমতার৷ আসন্ন বিধানসভার প্রাক্বালে কেন্দ্র—রাজ্য তরজা যে বেড়েই চলেছে তা কার্যত স্পষ্ট৷