ইয়েদুরাপ্পা সরকারের আমলে ৬৫০ ডাক্তারদের প্রায় তিন মাসের মাইনে বাকি!

এই এই বছরে প্রায় শুরু থেকেই করোনা তার মারণ থাবা বসিয়েছে গোটা দুনিয়াতে। ফলে, এই বছরে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ পদ পালন করেছেন ডাক্তাররা। দিনের পর দিন পরিবার থেকে দূরে থেকে ওনারা দেশের মানুষদের সেবায় নিজেদের বিলিয়ে দিয়েছেন। আবার অনেকেই করোনায় আক্রান্তও হয়েছেন। এমনকি অনেক ডাক্তার মারা ও গেছেন।এরমাঝেই খবর মিলেছে প্রায় ৬৫০ চিকিৎসককে গত সেপ্টেম্বর থেকে মাইনে দেওয়া হচ্ছে না। ফলে ক্ষোভ ছড়িয়েছে চারিদিকে।যার ফলে বিপাকে পড়েছেন ডাক্তারদের পরিবার পরিজন। দিনের পর দিন টাকা না দেওয়ায় তাদের সংসার চালানোর অসুবিধা তো হচ্ছেই এমনকি অনেক ক্ষেত্রে তাদের টাকা ধার করেও সংসার চালাতে হচ্ছে। অন্যদিকে সরকার পক্ষে সেই অভিযোগ জানানোর পরেও হয়নি কোন সুরাহা। প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পরেও এখনও মেলেনি মাইনে। হলে চিকিৎসার পরিবারের প্রায় পথহারা।

অনেক চিকিৎসককে আবার ব্যাংক থেকে নেওয়া শিক্ষা ঋণও পরিশোধ করতে হচ্ছে। অন্যদিকে এই ঘটনা প্রকাশ্যে তারপরই চারিদিকে শুরু হয়েছে সমালোচনা। বিরোধিরা সরকারের প্রতি তোপ দাগছেন। কিন্তু তার ফলে ডাক্তারদের কোন সমস্যা মিটছেনা এবং পাশাপাশি তারা আরও বিপাকে পড়ছেন। এখন বলার কথা কিভাবে মিটবে এই সমস্যা সেই দিনের অপেক্ষায় কর্ণাটকের বহু ডাক্তার।

প্রসঙ্গত , এই দুর্দিনে ভারতের মানুষদের পাশে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছিলেন সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী এবং ভারতীয় বিমান বাহিনী এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের কর্মীরা। এছাড়াও রতন টাটা, মুকেশ আম্বানি, অক্ষয় কুমার, আরো অনেক সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং ঘোষণা করেছিলেন যে তিনি তহবিলে এক মাসের বেতন দান করবেন। আর এবার সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী এবং ভারতীয় বিমান বাহিনী এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের কর্মীরা সাহায্য করবেন।