টলিউড

‘যৌবনকাল অবধি মা বাবাকে দস্তুরমতো চুম্বন খেতে দেখেছি – লুকিয়ে নয়’,এবারে মা কে নিয়ে কলম ধরলেন কবীর সুমন, সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করলেন নিজের কিছু মনের কথা

তার কলমের লেখা গানগুলি মানুষের হৃদয় ছুঁয়ে গিয়েছে বারবার। তার গানের সুর মানুষের মনে বারবার আশা-ভরসা জাগিয়েছে। তিনি আর কেউ নন আমাদের সকলের প্রিয় কবীর সুমন। এতদিন মানুষের জন্য কলম ধরতেন তিনি এবারে নিজের মায়ের জন্য কলম ধরলেন সুমন।

দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে তার গান মানুষের মনে রাজত্ব চালিয়ে গিয়েছে আজও তিনি মানুষের মনে একই জায়গায় বিরাজ করেন। একটি শীতের দুপুরে গা এলিয়ে দিয়ে মায়ের জন্য কলম ধরলেন তিনি। চারিদিকে করোনাভাইরাস এর মত মারণ রোগ ছড়িয়ে পড়েছে মৃত্যু যেন সকলকে গিলে খাচ্ছে সেই সময়েই বাড়ির বারান্দায় বসে মায়ের জন্য কিছু কথা লিখলেন ভেসে গেলেন মায়ের স্মৃতিতে। হঠাৎই ১৯৮০ সালের তার এবং মায়ের একটি ছবি খুঁজে পান তিনি। সেই ছবি দেখেই তিনি স্মৃতির গভীরের ডুবে যান এবং মাকে নিয়ে এক কলম লিখে ফেলেন।

বেশ কয়েক বছর ধরে কবীর সুমন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ফেসবুকে দারুন অ্যাক্টিভ থাকেন। সেখানে নিজের নানা কথা তিনি তুলে ধরেন তিনি। এবারে মাকে নিয়ে ফেসবুকে কিছু কথা লিখলেন তিনি “মায়ের সঙ্গে আমার ছবি খুব কম। এই ছবিটা কে যেন পাঠিয়েছেন আমায়। সেই কবে আমেরিকায় তোলা। ১৯৮০ সালে ভি ও এর চাকরি নিয়ে চলে গিয়েছিলাম মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। মূর্খ তাই চাকরি ছেড়ে ফিরে এসেছিলাম। —- অসামান্য এক মহিলা ছিলেন আমার মা। সারাজীবন স্বাধীনচেতা। বেপরোয়া। কারুর তোয়াক্কা করেননি। জন্মস্বাধীন। অক্লান্ত পাঠক। বই আর বই। আমার ৭/৮ বছর বয়স থেকে ইণ্ডিয়ান এয়ারলাইন্সে চাকরি করতেন। আমাকেও নিত্যজীবনে স্বাবলম্বনের পাঠ দিয়েছিলেন। “মা মা” করিনি কখনও। — মার্ক্সিস্ট ছিলেন। সি পি আই এমের সমর্থক। তারপর নকশালপন্থী।”

মাকে নিয়ে তার লেখা এই আবেগ ভরা পোস্ট সকল ভক্তদের মন ছুয়ে গিয়েছে। কবীর সুমন এমন একজন মানুষ তার লেখা গানে এমন জাদু আছে যে বর্তমান যুগের ছেলে মেয়েরাও কবীর সুমনের ডুবে থাকে মাঝেমধ্যে। তাকে ভোলা অসম্ভব তাঁর গানকে এড়িয়ে যাওয়া যেন একটা বড় কঠিন কাজ।

Back to top button