জিৎ- ও কি এবার রাজনীতিতে? জন্মদিনে কি বললেন নায়ক

কাল ছিলো ৩০শে নভেম্বর ৪২—এ পা দিলেন বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতা জিৎ৷ এই করোনা আবহেই তিনি কাটালেন তার জন্মদিন৷ অনুরাগীদের শুভেচ্ছায় ভরে ওঠে তার ইন্সটাগ্রাম হ্যাণ্ডেল৷ নিজের জন্মদিনে অভিনেতা লাইভে আসেন তার ইন্সটাগ্রামে৷ ফ্যানেরা তাদের প্রিয় অভিনেতাকে লাইভে পেয়ে স্বভাবতই উচ্ছ্বসিত হয়ে ওঠে, তারা নানান প্রশ্ন করতে থাকে তাকে৷ তিনিও হাসিমুখে সমস্ত প্রশ্নের জবাব একেরপর এক দিতে থাকেন৷

বেশ কিছুক্ষণ ধরে চলে এই লাইভ চ্যাট৷ ভক্তরা তার পরবর্তী ছবি “বাজি” কবে মুক্তি পাবে জানতে চায়৷ এছাড়াও জিৎ তার ফ্যানেদের প্রশ্নে নস্টালজিক হয়ে পড়েন,জানান তার প্রথম ছবি “চান্দু”—র কথা, এমনকি এও জানান যে তার পারিশ্রমিক ছিল মাত্র ৭৫ হাজার টাকা৷ এরপর একেরপর এক চরিত্রে অভিনয় করে দর্শকের মন জয় করতে থাকেন জিৎ৷ এর পাশাপাশি অনেকেই অভিনেতার রাজনীতিতে আসা নিয়ে প্রশ্ন করেন, তারা জানতে চান যে তাদের নায়ক কবে পা রাখছেন রাজনীতির মঞ্চে?

এর উত্তরে জিৎ জানান যে ভবিষ্যতে কি আছে তিনি জানেন না ,তবে তিনি ভাগ্যে বিশ্বাস রাখেন এবং ভাগ্য তাকে যে পথে নিয়ে তিনি সেই পথেই যাবেন এবং এর সাথে এও বলেন যে তিনি রাজনীতি সম্পর্কে কিছু জানেন না৷ জিৎ—এর ভবিষ্যত কি রাজনীতির ময়দানে নাকি বাংলা সিনেমাই তা নিয়ে থেকে যায় ধোঁয়াশাই৷ বাংলা সিনেমার প্রাঙ্গনে জিৎ এক সুপারস্টারের নাম৷ তাকে ঘিরে তার ফ্যানেদের অনেক প্রশ্ন,কিন্তু এইসব প্রশ্নের মাঝে যে লুকিয়ে আছে ভক্তদের তার প্রতি অগাধ ভালোবাসা৷ তাই ৪২—এর জন্মদিনে তিনি একেবারে মিশে যান তার অনুরাগীদের সাথে, সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দিতে থাকেন সেই লাইভ চ্যাটের মাধ্যমে৷

সোমবারের এই লাইভে ফ্যানেরা একেবারে কাছাকাছি পেলেন তাদের অভিনেতাকে৷ অভিনেতাও ফ্যানেদের মনের কথা জানতে পেরে হয়ে ওঠেন আপ্লুত৷ জিৎ আরও বলেন যে তিনি তার অনুরাগীদের সাথে কথা বলতে পেরে ভীষণ খুশি৷ তিনি সবসময়েই চান যে তার ফ্যানেদের সাথে কথা বলতে,আড্ডা দিতে কিন্তু হয়তো শুটিং—এ ব্যস্ততার কারণে রোজ লাইভে তার পক্ষে সম্ভবপর হয়ে ওঠে না৷  জিৎ—এর পরিবারের মানুষেরাও অত্যন্ত খুশি হয় যদি তিনি তার ফ্যানেদের সাথে কথা বলেন,অভিনেতা নিজের মুখে জানান সে কথা৷ সোমবারের লাইভ চ্যাটে প্রচুর মানুষের ভালোবাসায় আহ্লাদিত হয়ে পড়েন জিৎ এবং মানুষের কাছেই যে তিনি থাকতে চান তাও তার কথায় জানা যায়৷