টলিউড

অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন না অসুস্থ টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা দীপক হালদার, সরকার মুখ ফিরিয়ে নিলেও সাহায্যের হাত বাড়ালেন পরিচালক

একসময় বিনোদনের অংশ বলতে আমরা পড়ছিলাম থিয়েটার, যাত্রাপালা ইত্যাদি। কিন্তু বর্তমানে টেলিভিশন চলে এসেছে। বদলেছে অনেক কিছুই। তাই বর্তমানে বিনোদন বলতে মানুষ চলচ্চিত্র ধারাবাহিক ইন্টারটেনমেন্ট এগুলোই বোঝেন। এছাড়াও মুঠোবন্দী ফোনে অনেক সুবিধা চলে এসেছে আমাদের জন্য। বর্তমানে টলিউডে এমন অনেক পরিচালক-প্রযোজক রয়েছেন যারা শুধুমাত্র মানুষের বিনোদনের জন্য কাজ করে চলেছেন। কিন্তু তাদের সঠিক চিকিৎসার জন্য অর্থ নেই। এরকম খবর নতুন নয় এর আগেও আমরা শুনেছি বহু অভিনেতা-অভিনেত্রী অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন না। এই সমস্ত ঘটনা আমাদের মনে প্রভাব ফেলে। সম্প্রতি জনপ্রিয় অভিনেতা দীপক হালদার এর অসুস্থতার খবর ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে। জানা গিয়েছে অভিনেতা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন স্টেন্ট বসাতে হবে কিন্তু সেই চিকিৎসা করার মত অর্থ তার কাছে নেই।

সিনেমার পর্দায় বহুবার দীপক হালদার কে বিভিন্ন চরিত্রে দেখা গিয়েছে। তার অভিনয় প্রতিবারই দর্শকদের নজর মন দুটোই কেড়ে নিয়েছে। কিছুদিন আগে ‘বিরহী’ নামের একটি ওয়েব সিরিজেও দেখা গিয়েছিল তাকে। সিরিজে বোম বলাই নামক একটি চরিত্রে সকলের নজর কেড়েছেন অভিনেতা। কিন্তু এমন একজন প্রতিভাবান অভিনেতা শুধুমাত্র অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন না এটা খুবই দুঃখজনক।

জানা গিয়েছে সরকার থেকে বিনামূল্যে আর স্বল্পমূল্যে চিকিৎসার জন্য যে কার্ড এর ব্যবস্থা করা হয়েছে সে কার্ডের কোন সুবিধা নেই অভিনেতা কাছে। কিন্তু এবারের টলিউডের দুই জনপ্রিয় পরিচালক প্রদীপ্ত ভট্টাচার্য ও ঋত্বিক চক্রবর্তী এগিয়ে এলেন অভিনেতাকে সাহায্য করার জন্য। একটি ফেসবুক পোস্টে তিনি লেখেন, ‘দীপক বাবুর স্বাস্থ্যসাথী কার্ড নেই, আর বেসরকারি হাসপাতালে খরচ অনেক। বিগত কয়েকদিন ধরে এন আর এস ও ক্যালকাটা মেডিকেল কলেজে ভর্তি হওয়ার চেষ্টা করেও হতে পারেননি তিনি। মেডিক্লেম বা সরকারি কার্ড না থাকলে কি কিছু করা যাবে না? লোকটা বাঁচবে কি করে?’

আর সোশ্যাল মিডিয়ায় এই পোস্ট ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়ে পরে। সকলের স্মার্টফোনেই পৌঁছে যায় তার এই অনুরোধ। অনেক নেটিজেন সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় দীপক বাবুর চিকিৎসার জন্য। অনেকেই দীপক বাবু সুস্থ হয়ে ওঠার কামনা করেন। আগামী সোমবার পিজি হাসপাতালে ভর্তি হবেন তিনি, তারপর শুরু হবে চিকিৎসা। আর নিজের এই খারাপ সময়ে এত মানুষের ভালোবাসা প্রার্থনা এবং পাশে থাকার জন্য তিনি সকলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

Back to top button