টলিউডবাংলা সিরিয়াল

‘হাজারো কটুক্তি, অশালীন মন্তব্য সহ্য করে গর্ভে ধারণ করেছেন সন্তান! গর্ভযন্ত্রনা বুঝলে এভাবে মাতৃত্বকে কলঙ্কিত করতে পারতেন না কেউ’, সাংসদ-তারকাকে সমর্থন জানিয়ে এ বার মুখ খুললেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রুতি দাস

অভিনেত্রী শ্রুতি দাস বরাবরই স্পষ্টভাষী। অভিনেত্রী গ্ল্যামার জগতে প্রবেশ করার পর থেকেই দেখা গেছে কুৎসা, কটাক্ষ,বর্ণবৈষম্য তার পিছু ছাড়েনি। তবে তিনি চুপ করে বসে থাকার পাত্রী নন। যতবার তাকে কেউ কটুক্তি করেছে ততোবারই তিনি কড়া ভাষায় জবাব দিয়েছেন। এবারে অভিনেত্রী শ্রুতি দাস কে দেখা গেল অভিনেত্রী নুসরাত জাহান এর পাশে দাঁড়াতে। অভিনেত্রী নুসরাত জাহানের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কাটাছেড়া কম হয়নি দীর্ঘ নয় মাস ধরে। যদিও কেউ কেউ মনে করেন এই জায়গাটি হয়তো তিনি নিজেই তৈরি করেছেন। তবুও সবকিছুর আগে মাতৃত্ব আশীর্বাদস্বরূপ।

এক সংবাদমাধ্যমকে নুসরাত জাহানের মাতৃত্ব প্রসঙ্গে অভিনেত্রী শ্রুতি দাস জানিয়েছেন, ‘‘নুসরতের গর্ভযন্ত্রণা যদি বুঝত তা হলে নিন্দুকেরা তাঁর মাতৃত্বকে এ ভাবে কলঙ্কিত করত না!’’ শুধু সংবাদমাধ্যমেই নয় অভিনেত্রী নিজের বক্তব্য তুলে ধরেছেন নিজের ফেসবুক একাউন্টের দেয়ালেও। গতকাল রাতেই অভিনেত্রীর একটি পোস্ট ফেসবুক মাধ্যমে ঘুরে বেড়ায় যেখানে লক্ষ্য করা যায়, “যতবারই ওই সদ্যোজাতকে বাবার নাম জিগ্যেস করে হেয় করতে চাইবেন, জানবেন, ঠিক ততবার জিতে যাবেন এক সাহসী সিঙ্গেল মাদার নুসরাত জাহান। তিনি ভাল সাংসদ হতে পেরেছেন কি পারেননি তা নিয়ে নির্দ্বিধায় প্রশ্ন তুলুন। কিন্তু তাঁর মাতৃত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলার আগে একবার অন্তত লজ্জা পাবেন প্লিজ…”

একইসঙ্গে সদ্য মা এবং নবাগত সন্তানের সুস্থতা কামনা করেছেন অভিনেত্রী শ্রুতি দাস। একই পোস্টে চোখ রাখলে আরো কয়েকটি কথা চোখে পড়বে, যেখানে অভিনেত্রী শ্রুতি দাস উল্লেখ করেছেন, “বিগত ১০ মাস ধরে দিনের পর দিন আপনাদের হাজারও কটুক্তি, অশালীন মন্তব্য সহ্য করার পরেও যিনি পরম যত্নে তাঁর গর্ভে লালন করে গিয়েছেন নিজের সন্তানকে, আজ কিন্তু তাঁর মাতৃত্ব জিতে গেল।”

অভিনেত্রী শ্রুতি দাসকে এরকম স্পষ্ট ভাষায় কথা বলতে দেখা গেছে আগেও। নিজের গায়ের রং কিংবা প্রেমিকের সাথে বয়সের ব্যবধান নিয়ে সব সময় এই সামাজিক মাধ্যমে কটাক্ষের শিকার হতে হয়। অভিনেত্রী হয়তো সেই জায়গায় দাঁড়িয়েই বুঝতে পেরেছেন অভিনেত্রী নুসরাত জাহান এর লড়াই। এই জন্যই হয়তো অভিনেত্রী বিশেষ সংবাদমাধ্যমের কাছে হোয়াৎসঅ্যাপ দাবি করেছেন,‘‘দোষে গুণে মিলিয়ে মানুষ। যদিও আমি নুসরতকে ব্যক্তিগত ভাবে চিনি না। তবু আমাদের মধ্যে বড় মিল, আমরা দু’জনেই নারী। মায়ের জাত।’

নুসরাত জাহানের মাতৃত্বের অনুভূতি হয়তো আরো সুন্দর হতো আরো স্বাভাবিক হত আরো প্রানোজ্জল হত যদি না একদল নিন্দুকেরা তার নামে এভাবে কুৎসা রটাত। অভিনেত্রী শ্রুতি দাস এর মতে নিন্দুকেরা এই রকম নোংরামি করতেই থাকবে তিনি বা তার মত সবাই প্রতিবাদ জানাতেই থাকবেন আর কোনো শেষ হবে না। একই মুহূর্তে শ্রুতি দাসের আরও বক্তব্য,‘‘যাঁরা আমাদের সম্মান করেন না তাঁরাও আমাদের থেকে সম্মান পাবেন না।’’

Back to top button