টলিউড

করোনা পরীক্ষার খরচ ১০ হাজার টাকা! দেউলিয়া হয়ে ভেনিসের রাস্তায় মাথায় হাত দিয়ে বসে পড়েন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র, টাকার অভাব জানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট অভিনেত্রীর

সম্প্রতি ভেনিস যাত্রা করেছেন টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। ভেনিসের এইদিক ওইদিক ঘুরে নানারকম ছবি সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ভাগ করে নিচ্ছেন তিনি। তবে ভেনিসের টাকার অঙ্ক দেখে তো অভিনেত্রীর মাথায় হাত। ভেনিসে গিয়ে সেখানের নিয়ম মেনে করোনা পরীক্ষা করতে হয়েছে অভিনেত্রীকে এবং সেই পরীক্ষা করতে গিয়েই দেউলিয়া হয়েছেন তিনি।

১১২ ইউরো খরচ হয়েছে যার ভারতীয় মূল্য প্রায় ১০ হাজার টাকা। ভেনিসের রাস্তায় মাথায় হাত দিয়ে বসে পড়েন তিনি এবং সেই ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লেখেন “RTPCR টেস্ট করাতে ১১২ ইউরো খরচ হল, অর্থাৎ ১০ হাজার টাকা…ভেনিসে মাথায় হাত অভিনেত্রীর।”

বিদেশে ঘুরতে গিয়ে একের পর এক কাণ্ড সকলের সঙ্গে ভাগ করে নিচ্ছেন অভিনেত্রী। কয়েকদিন আগেই ৬০ ইউরো দিয়ে প্রাইভেট বোট ট্যাক্সি ভাড়া করে লিডো থেকে গিয়েছিলেন ভেনিসে, সেই অঞ্চল পুরো ঘুরে দেখেছেন। ভারতীয় হিসেব অনুযায়ী যার মূল্য ৫ হাজার এরও বেশি। নিজের সেইসমস্ত ছবি পোস্ট করে লিখেছেন ‘দেউলিয়া হয়ে গেলাম’।

এইদিকে ভেনিসের এক রেস্টুরেন্টে গিয়ে আর এক কাণ্ড। রেস্টুরেন্টে গিয়ে একজন সুন্দর সুপুরুষের রূপে মুগ্ধ হন শ্রীলেখা। আর তারই ফাঁদে পড়ে ভেনিসের একটি মাছের পদ অর্ডার করেন। খাওয়ার শেষে দাম দেখে তো তার চক্ষু চড়ক গাছ। বিল হয় ৬৩.২০ ইউরো।

অর্থাৎ ৫ হাজার এরও বেশি। রেস্তোরাঁর সেই ছেলের সঙ্গে সেলফিও তুলেছেন তিনি, তা নিজের সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করেছেন। ক্যাপশনে লেখেন, “এই সেই কালনাগিনী মাছ। সুন্দর ছেলে দেখে দাম জিজ্ঞেস না করার ফলে এই যে বিল।”

শ্রীলেখার ভেনিস যাত্রার মূল কারণ হলো, ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসবে আমন্ত্রণ পেয়েছেন পরিচালক আদিত্য বিক্রম সেনগুপ্তের ছবি ‘ওয়ানস আপন আ টাইম ইন কলকাতা’ এবং সে ছবিতেই একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। সেই উদ্দেশ্যেই মূলত তার ভেনিস যাওয়া।

Back to top button