টলিউড

লাইভে এসে বাবার কথা মনে করে রীতিমতো কান্নায় ভেঙে পড়লেন রচনা ব্যানার্জী! ‘বাবা ছাড়া আমি অপূর্ণ, বাবার জন্য আজ রচনা হয়েছি’, জানালেন অভিনেত্রী

চলতি বছরের নভেম্বর মাসে বার্ধক্যজনিত অসুস্থতার কারণে প্রয়াত হয়েছেন টলিউডের একসময়ের প্রথম সারির অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জীর বাবা। এই ঘটনায় মানসিকভাবে একেবারে ভেঙে পড়েছিলেন অভিনেত্রী। যার জন্য সাময়িকভাবে টেলিভিশনের পর্দায় দেখা মেলেনি তার। তার রচনাস ক্রিয়েশনের হয়েও লাইভ করতে দেখা যায়নি অভিনেত্রীকে। তবে এবার তিনি ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হওয়ার চেষ্টা করছেন। ইতিমধ্যেই কাজেও ফিরেছেন তিনি।

সম্প্রতি জি বাংলার পর্দায় ‘দিদি নম্বর ১’এর পিকনিক স্পেশাল এপিসোডে আবারো সঞ্চালিকা হিসেবে দেখা মিলেছে রচনা ব্যানার্জীর। খুশি অনুরাগীরাও। তার ফেরায় খুশি চ্যানেল কর্তৃপক্ষের পাশাপাশি ‘দিদি নম্বর ১’এর সেটের সকলেই। অভিনেত্রীর বাবা প্রয়াত হওয়ার পরে তিনি যখন জানিয়ে দিয়েছিলেন সেই মুহূর্তে তিনি সঞ্চালনার কাজ করতে পারবেন না, তখন তার অনুপস্থিতিতে এই রিয়্যালিটি শো এগিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন জি বাংলার রান্নাঘর খ্যাত সঞ্চালিকা সুদিপা চ্যাটার্জী ও অভিনেতা সৌরভ দাস।

সম্প্রতি রচনা ব্যানার্জীকে আবারো তার রচনাস ক্রিয়েশনের হয়ে লাইভে আসতে দেখা গিয়েছে। লাইভে এসে বাবার কথা মনে করে কান্নায় ভেঙে পড়লেন অভিনেত্রী। তিনি জানান, শুরুর দিন থেকে এখনো পর্যন্ত তিনি যে জায়গায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন তার বাবার অনুপ্রেরণা ছাড়া তা সম্ভব হতো না। তিনি এও জানান, বাবার মৃত্যুতে তিনি মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে সবকিছু বন্ধ করে দিয়েছিলেন। কিন্তু বাবার বলে যাওয়া কথাগুলো মনে করে এবং মায়ের অনুপ্রেরণায় আবারো কাজে ফিরেছেন তিনি।

তিনি শুরুতে রচনাস ক্রিয়েশনের হয়ে দর্শকদের কথা দিয়েছিলেন তাদের সকলের জন্য তিনি শাড়ির সম্ভার নিয়ে আসবেন। কিন্তু তার জীবনের কঠিন পরিস্থিতির কারণে তিনি সেই কথা রাখতে পারেননি। তার জন্য তিনি লাইভে সকলের কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন। তবে আবারো তিনি মন শক্ত করে কাজে ফিরেছেন নিজের জন্য এবং সকলের জন্য।

Back to top button