টলিউড

‘কেউ তোমাকে পরখ করতে, বাঁচাতে আসবে না’! সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের সিদ্ধান্তে অনড় থাকার কথা আবারো জানালেন নুসরত জাহান

চলতি বছরে টলিউডের সব থেকে বেশি চর্চিত অভিনেত্রী হলেন নুসরাত জাহান। এই অভিনেত্রীর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে অনেক চুলচেরা বিশ্লেষণ হয়েছে মিডিয়াতে। বিয়ে, বিচ্ছেদ,সম্পর্ক, মা হওয়া নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। তবে অগাস্ট মাসের শেষের দিকে পার্কস্ট্রীটের এক বেসরকারি হাসপাতালে ছেলে ঈশানের জন্ম দেন অভিনেত্রী।

এরপর সিঙ্গেল মাদার হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন অভিনেত্রী। আর তারপরই অভিনেত্রীর বাচ্ছার বাবা কে সেই নিয়ে তল্পার হয়ে যায় গোটা নেটমাধ্যম। এরপরই ঈশানের বাবার নাম হিসাবে উঠে আসে টলিউড অভিনেতা যশ দাসগুপ্তের নামে। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া থেকে বাড়ি ফেরা পর্যন্ত তার সঙ্গেই ছিলেন যশ দাসগুপ্ত। এমনকি অভিনেত্রী ছেলের শংসাপত্র আনতে যাওয়ার সময়ও তার সাথে দেখা গিয়েছিল যশ দাসগুপ্তকে।

সম্প্রাতি নিজের সিদ্ধান্তে অনড় থাকার কথা আবারো জানালেন অভিনেত্রী। নিজের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট থেকে সোমবার একটি বার্তা দিলেন অভিনেত্রী। নিজের ইনস্টা স্টোরিতে একটি ইংরাজী লেখা শেয়ার করছেন অভিনেত্রী। যার বাংলা অনুবাদ করলে হয়, ‘কেউ তোমাকে বাঁচাতে আসবে না, অনুমতি দিতে আসবে না। কেউ আসবে না তোমাকে বেছে নিতে বা পরখ করতে। এটা তোমারই কাজ।নিজেকে এত ভালবাসতে হবে যাতে দৃঢ় থেকে নিজের জন্য লড়াই করা যায়, নিজেকে তৈরি করা যায়।’

অভিনেত্রী এই লেখাটি শেয়ার করার পর থেকেই নেটবাসীদের মনে অনেক প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে। অনেকের ধারণা নিজের সিঙ্গেল মা হওয়ার সিদ্ধান্তে তিনি অনড় থাকবেন এমনটাই আবারো সকলকে জানিয়েছেন অভিনেত্রী। অনেকের মনে এই প্রশ্নও জেগেছে, তিনি কি কারুর প্রত্যাশী? নাকি যেখানে বিতর্ক তার এবং তার সদ্যজাত ছেলের পিছু ছাড়ছে না সেখানে সেই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে তিনি নিজের প্রতি ভালবাসার বার্তা দিয়েছেন এই লেখার মধ্যে দিয়ে। তবে অভিনেত্রী এই লেখাতি শেয়ার করার মধ্য দিয়ে ঠিক কি বলতে চেয়েছেন তা এখনও পরিষ্কার নয় সকলের কাছে।

Back to top button