টলিউড

“নুসরাতকে আদালতে গিয়ে বলতে হবে আমার সঙ্গেও কোন সম্পর্ক রাখতে চায় না”, :নিখিল জৈন

দীর্ঘদিন ধরে একটানা সমালোচনার পর শেষ অবধি আশা করা গিয়েছিল নিখিল জৈন এবং নুসরাত জাহান হয়তো মুখোমুখি হবেন। সেই সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়ে নিখিল জৈন এক সংবাদমাধ্যমকে জানান, ‘‘এখন আমি খুবই ব্যস্ত। কলকাতায় নেই। বারাণসীতে আছি। সামনে পুজো আসছে। কাজ ছাড়া কিছু ভাবতে পারছি না।’’

বেশ কিছুদিন আগে সেই সংবাদমাধ্যমে এক সাক্ষাৎকারে নিখিল বলেছিলেন, “যেদিন আমি বুঝেছিলাম নুসরাত অন্য কারো সঙ্গে থাকতে চায়, সেইদিনই আলিপুর আদালতে নুসরাতের বিরুদ্ধে দেওয়ানী মামলা দায়ের করেছিলাম। মঙ্গলবার সেই মামলার শুনানির দ্বিতীয় তারিখ।” কিন্তু বর্তমানে নিখিল বারাণসীতে রয়েছেন। তাই তিনি এই মুহূর্তে আদালতে উপস্থিত থাকতে পারবেন না। তবে আদালতের নিখিলের উপস্থিত থাকা একান্ত বাঞ্ছনীয় নয় কি! এই প্রশ্নের মুখে পড়লে ব্যবসায়ী বলেন, ‘‘আজ আমার প্রতিনিধি ওখানে থাকবে। আমার উপস্থিতির প্রয়োজন পড়বে না। নুসরতকে আদালতে গিয়ে বলতে হবে, আমার সঙ্গে ও আর কোনও সম্পর্ক রাখতে চায় না।’’

তবে অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় নুসরাত জাহান কি আদৌ আদালতে উপস্থিত হবেন! এই প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। তবে এই প্রশ্নের জবাব দেননি ব্যবসায়ী নিখিল জৈন। বিয়ে ব্যবসায়ী বিচ্ছেদের মামলা করলেও নুসরাতের এক বিবৃতিতে জানিয়ে দিয়েছেন, “নিখিলের সাথে আমার কোনদিন বিয়েই হয়নি, শুধুমাত্র লিভিং সম্পর্কে ছিলাম আমরা।”

অভিনেত্রীর কথায় সামাজিক মতে বিয়ে হলেও আইনি মতে বিয়ে তাদের হয়নি। তাই বিচ্ছেদের কোন প্রশ্নই আসে না। এই বিবৃতি অনুযায়ী বলা যেতে পারে নুসরাত হয়তো মঙ্গলবার আদালতে উপস্থিত হবেন না। এ প্রসঙ্গে ব্যবসায়ীর মতামত চাওয়া হলে তিনি জানান, ‘‘এই বিষয়টি এখন আদালতের বিচারাধীন। আদালত যদি দু’পক্ষকেই উপস্থিত হতে বলে, তা হলে দু’জনকেই থাকতে হবে।’’

অভিনেতা যশ দাশগুপ্তের সাথে সম্পর্ক নিয়ে নানা রকম তথ্য উঠে এসেছে। তবে এই বিষয়ে মুখ খোলেননি যশ দাশগুপ্ত নিজে। মানসিক দৃঢ়তা যেকোনো খারাপ পরিস্থিতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে পারে সে সম্পর্কে বারংবার বার্তা দিয়ে চলেছেন অভিনেত্রী নুসরাত জাহান এবং অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত দুজনেই।

Back to top button