সন্তানের বাবা তিনি নন, বর্তমান স্ত্রী নুসরতের বিরুদ্ধে দেওয়ানি মামলা দায়ের নিখিলের

সম্প্রতি সারাটা হৃদয় জুড়ে শোনা যাচ্ছে এক গুঞ্জন। নুসরাত জাহান নাকি খুব শীঘ্রই মা হতে চলেছেন। সংবাদপত্রে এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন শুধু এই খবর। তবে এই বক্তব্যের উপর ভিত্তি করে কোন রকম সেরম তথ্য পাওয়া যায়নি।

এই নিয়ে মুখ খোলেননি অভিনেত্রী নিজেও। সম্প্রতি চারিদিকে শুধু একটাই কথা শোনা যাচ্ছে এটাই যে নুসরাত জাহান নাকি খুব শীঘ্রই মা হতে চলেছেন তবে সেই বাচ্চার বাবা নিখিল জৈন অর্থাৎ তার স্বামী নন।

এই সবকিছুর মাঝে আবারও গুঞ্জন উঠেছিল যে নিখিল জৈন নুসরাতের বিরুদ্ধে দেওয়ানী মামলা করেছেন। তবে নিখিল স্পষ্ট করেছেন যে তিনে অনেক আগেই নুসরতের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন।

এর সঙ্গে নুসরাতের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবরের কোনও সম্পর্ক নেই। আনন্দবাজারকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নিখিল জৈন জানান, “যে দিন জানলাম, নুসরত আমার সঙ্গে থাকতে চায় না , অন্য কারও সঙ্গে থাকতে চায়, সে দিনই দেওয়ানি মামলা দায়ের করেছি আমি। নুসরতের মা হওয়ার পরে এই সিদ্ধান্ত নিইনি আমি।’’ আগামী জুলাই মাসে আদালতে এই মামলার শুনানি এমনটাই জানা গেছে।

গত ৬ মাস ধরে নিখিল-নুসরত আলাদা থাকেন। গত তিন দিন ধরে যে গুঞ্জন চলছে অর্থাৎ শোনা যাচ্ছে নুসরাত মা হতে চলেছে সে বিষয়ে নিখিল জৈন আনন্দবাজারকে জানান, ‘‘অনাগত সন্তানের জনক আমি নই।’’

তিনি এও বলেন যে তিনি আর নুসরাত এর সঙ্গে একসাথে থাকতে চান না। যেহেতু নিখিল ও নুসরাতের ম্যারেজ রেজিস্ট্রেশন হয়নি তাই অ্যানালমেন্ট করেই নুসরাতের থেকে আলাদা হতে চান তার স্বামী নিখিল। এর নিয়ম অনুযায়ী অভিনেত্রীকে আদালতে গিয়ে বলতে হবে তিনি নিখিল অর্থাৎ তার স্বামীর সঙ্গে ভবিষ্যতে আর কোনো রকম কোনো সম্পর্ক রাখবেন না।