মধ্যরাতে যশ নুসরতের বিজেমূল পার্টি! নেটিজেনরা মজে দুজনের প্রেমের সম্পর্কের জল্পনায়

অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত এবং অভিনেত্রী নুসরাত জাহান দীর্ঘদিনের বন্ধু। একসঙ্গে অনেকগুলো সিনেমায় অভিনয় করেছেন তারা। পাশাপাশি টলিউড ইন্ডাস্ট্রির বিভিন্ন পার্টিতে দুজনকে বেশ দেখা যেত একসঙ্গে আড্ডায় মজে।

নুসরাতের বিয়ের পরও দুজনের বন্ধুত্বে কোন ছেদ পড়েনি। সম্প্রতি অংশুমান প্রত্যুষ এর পরিচালনায় এস ও এস ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছেন এই দুই অভিনেতা অভিনেত্রী।

টলিউডের গুঞ্জন এই ছবির শুটিং চলাকালীন দুজনের মধ্যে গড়ে ওঠে রোমান্টিক সম্পর্ক। এই জল্পনার আগুনে ঘি ঢালে নুসরাত এবং তার স্বামী নিখিল জৈন সম্পর্কের অবনতির খবর। জানা গেছে দুজন সম্প্রতি আলাদাও থাকতে শুরু করেছেন। আর এই সময়েই অভিনেতা যশ দাশগুপ্তর সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা বেড়েছে নুসরতের।

এর আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় জল্পনা চলছিল তাদের বন্ধুত্বের মেয়াদ নিয়ে। কারণ নুসরাত জাহান একজন তৃণমূলের সংসদ, অপরদিকে যশ দাশগুপ্ত এবার প্রথমবারের জন্য ভারতীয় জনতা পার্টি থেকে বিধানসভা ভোটে লড়েছিলেন। যদিও তিনি জিততে পারেননি।

এবারে করোনা আবহেও যশ এবং নুসরতকে দেখা গেল একসঙ্গে একটি পার্টিতে আসতে। এর আগে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু পরিচালিত ডিকশনারি ছবির প্রিমিয়ারে এই জুটি একসঙ্গে এসেছিলেন। তবে এদিনের পার্টির কোন ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন যশ বা নুসরত কেউই।

তবে গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ড আয়ুর্বেদিক এর ডিরেক্টর রাজ কুমার গুপ্ত তার নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল যশ এবং নুসরাত এর সঙ্গে আলাদা আলাদা করে ফটো দিয়েছেন ‘পার্টি টাইম’ ক্যাপশন সহযোগে।

এরপরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনেতা-অভিনেত্রীর অনুগামীরা নিশ্চিত হোন দুজনের সম্পর্ক নিয়ে। যদিও এই জল্পনা নিয়ে মুখ খোলেননি নুসরত বা যশ কেউই।

তবে তাদের অনুগামীরা কিন্তু আশা ছাড়ছেন না। তারা এই কাপলের জন্য একটি নামও বের করে ফেলেছেন। যশ এবং নুসরাত এর নাম কে একত্রিত করে এখন তারা যশ ও নুসরত কে ‘যশরত’ বলে ডাকছেন।