খাওয়া-দাওয়া করেও ৭৮-৫৭ কেজি হয়েছেন দেবলীনা কুমার, জানলে চমকে যাবেন অভিনেত্রীর রোগা হওয়ার সিক্রেট

দেবলীনা কুমার বর্তমানে বেশ জনপ্রিয় অভিনেত্রী টলি পাড়ায়। সম্প্রতি অভিনেতা গৌরভ চ্যাটার্জির সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন অভিনেত্রী দেবলীনা কুমার।

ছোট থেকেই অভিনেত্রী হওয়ার শখ দেবলীনার। তবে অভিনেত্রীর আজ থেকে কয়েক বছর আগেকার ছবি দেখলে চেনাই যাবে না তাকে।

বৃহস্পতিবার ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে নিজের ১১ বছর আগেকার ছবি পোস্ট করেছিলেন অভিনেত্রী। সেই ছবি দেখে কোনোভাবেই অভিনেত্রীকে চেনার উপায় নেই।

কারণ তখন তিনি ছিলেন বেশ গোলগাল। এখনকার ‘রঙ্গবতী’-র দেবলীনার সাথে কোনোভাবেই মিল খুঁজে পাওয়া যাবে না ১১ বছর আগেকার ছবির দেবলীনার সাথে।

ছোট থেকেই অভিনেত্রী পড়াশোনা করার পাশাপাশি নাচের ক্লাসও নিতেন। কিন্তু ঐ সময়ে অভিনেত্রীর ওজন ছিল ৭৮ কেজি। তার ঐ ওজন নিজের স্বপ্নপূরণের অন্তরায় ছিল বলেই মনে করতেন অভিনেত্রী। কলেজের তৃতীয় বর্ষ পর্যন্ত তার ওজন বেশিই ছিল।

আনন্দবাজার পত্রিকার একটি সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী জানান, “ছোটবেলায় ভাবতাম অভিনেত্রী হতে গেলে রোগা হওয়া প্রয়োজন। তখনও বিদ্যা বালন বা অপরাজিতাদির মতো অভিনেত্রীদের ছক ভাঙা কাজগুলো বুঝতাম না। কলেজের তৃতীয় বর্ষ পর্যন্ত আমার ওজন বেশি ছিল। এর পর ধীরে ধীরে শরীরচর্চায় মন দিই।”

কলেজের তৃতীয় বর্ষের পর থেকেই অভিনেত্রী দেবলীনা কুমার শরীর চর্চা শুরু করেন। প্রথমদিকে বাড়িতেই প্রশিক্ষক আসতেন শরীরচর্চা করাতে কিন্তু পরে তিনি জিমে যোগদান করেন।

অভিনেত্রী কড়া ডায়েট করতে পারেন না। তাই তিনি শরীরচর্চায় মনোযোগী হয়েছিলেন এবং প্রতিদিন জিমে যাওয়া শুরু করেছিলেন।

অভিনেত্রী জিম করার কিছু সরঞ্জাম কিনে শরীর চর্চার জন্য একটা জিম বানিয়ে ফেলেছেন। তিনি ঐ খানেই তার শরীর চর্চা করেণ। অভিনেত্রী এও জানান তিনি সপ্তাহে চার-পাঁচদিন অল্প মাটন খান।

বিকেলে দুধ চা আর মাঝেমধ্যে ইচ্ছা হলে রাতে বিরিয়ানিও খন। তবে খাওয়ার পর মাপ বুঝে ক্যালোরিও ঝরিয়ে নেন তিনি। বর্তমানে তার ওজন ৫৮ কেজি। বর্তমানে রাজ্যজুড়ে লকডাউন। এই লকডাউনে নিজের মতো করেই শরীর চর্চা করছেন।