বয়স সবে সাত মাস, তাতেই নাকি করোনা যুদ্ধে লড়াই করাবার অনুপ্রেরণা দিচ্ছে ছেলে! এমনি কথা শেয়ার করলেন বিধায়ক তথা পরিচালক রাজ্ চক্রবর্তী

বয়েস সবে সাত মাসে পা দিয়েছে রাজ্ ও শুভশ্রীর পুত্র, কিন্তু তাতে কি এইটুকু বয়েসেই বাবাকে অনুপ্রেরণা দিচ্ছে ইউভান। গত ২শরা মে ব্যারাকপুরে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হয়ে জিতেছেন পরিচালক।

তারপর থেকেই সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর নানা পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করে চলেছেন। এই কঠিন সময়ে সাথে থেকেও পাশে নেই স্ত্রী শুভশ্রী। কিন্তু তাতে কি বাবার পাশে হাসি মুখে রয়েছে সাত মাসের ইউভান।

এই মাসের শুরুতেই করোনা আক্রান্ত হন শুভশ্রী তারপর থেকেই কোয়ারেন্টাইনে শুভশ্রী, তাই এক হাতে বাবা, পরিচালক ও সদ্য বিধায়কের দায়িত্ব পালন করছেন রাজ্।

এক সংবাদ মাধ্যমে তার কাজের অনুপ্রেরণা জিজ্ঞেস করা হলে একবারও না ভেবে রাজ্ নিয়ে ফেলেন ছেলের নাম। সাত মাসের ইউভানের থেকেই সব দিক সামলানোর সাহস পাচ্ছেন পরিচালক।

“প্রায় এক মাস মতো হতে চললো শুভ আইসোলেশনে, ধীরে ধীরে সুস্থ হতে চলেছে সাত মাস বয়েস হলেও কি হবে ইউভান খুব বুদ্ধিমান” বলে ওঠে রাজ্।

আরো বলেন, “আমি যখনি ক্লান্ত থাকি কিংবা কোনো চিন্তায় মগ্ন থাকি তখনি ইউভানের সঙ্গে সময়ে কাটালে আমার সমস্ত ক্লান্তি, চিন্তা নিমেষে দূর হয়ে যায়.” ওর হাসিমুখ আমাকে অনেক কিছু করবার সাহস যোগায়।

ছোট্ট ইউভানও নিজের ভঙ্গিমায় বাবার কথায় সম্মতি জানায়। কিছুদিন আগে রাজ্ তার ইনস্টাগ্রাম একাউন্টে ছেলের সঙ্গে একটি ছবি শেয়ার করেন।

দুজনেরই পরনে ছিল সাদা রঙের পায়জামা পাঞ্জাবি। ছেলের কথা বলতে বলতে কোথাও যেন রাজের বাবার কথা মনে পরে যায়। চলতি বছরেই রাজ্ চক্রবর্তীর বাবা কৃষ্ণচন্দ্র চক্রবর্তী মারা যান।

রাজ্ ছোট থাকতে একটি সরকারি স্কুলে শিক্ষকতা করতেন তিনি। ছোটবেলা অভাবে না কাটলেও অনেক কিছু ত্যাগ করতে হয়েছিল তাকে এবং তার বাবাকে।

বিখ্যাত হবার পরেই রাজ্ নিজের পরিবারের সমস্ত অভাব দূর করতে শুরু করেন। আজ কোনো কিছুর অভাব না থাকলেও মনে মনে বাবাকে বেশ মিস করেন পরিচালক। তাও হাসিমুখে ছেলের দিকে তাকিয়ে বলে ওঠেন, “বাবা আমাদের উপর থেকেই আশীর্বাদ করছেন।”

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Raj Chakrabarty 🇮🇳 (@rajchoco)