টলিউড

চোখের নিমেষে সব পুড়ে ছাই! জনপ্রিয় গায়ক কেশব দে এর বাড়ি স্টুডিওতে আগুন লেগে ছারখার, বিধ্বংসী আগুনে পুড়ে ছাই তিল তিল করে গড়ে তোলা স্বপ্ন

গানের জগতে বেশ পরিচিত একটি নাম হল কেশব দে। নিজের গানের জন্য তো বটেই এমনকি বিভিন্ন বিতর্কিত কারণে তিনি খবরের শিরোনামে উঠে আসেন মাঝেমধ্যে। তবে এবারে যে কারণে তিনি খবরের শিরোনামে উঠে আসলেন তার কারণটি অত্যন্ত মর্মান্তিক এবং দুঃখজনিত। সম্প্রতি জানা গিয়েছে কেশব দের বাড়ি এবং গানের স্টুডিও পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে। সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করলেন গায়ক। নিজের বাড়িতে একটি গানের স্টুডিও বানিয়েছিলেন কেশব। চোখের সামনে সেটি পুড়ে ছাই হয়ে গেল ঘটনায় বেশ ভেঙে পড়েছেন তিনি স্টুডিওর নাম ছিল মিউজিক প্লানেট।

সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি লিখেছেন “স্বপ্নগুলো পুড়ে ছাই হয়ে গেল সবটুকু শেষ হয়ে গেল তবে আমরা সবাই ঠিক আছি।”এরপরেই নিজের সেই পুড়ে যাওয়া বাড়ি এবং স্টুডিওর কিছু অংশ ছবি তুলে পোস্ট করেন সোশ্যাল মিডিয়াতে অনেক নেটিজেন উদ্বিগ্ন হয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন করেছেন কেশবের কাছে। যে সমস্ত নেটিজেন পেশাবের কাছে পুরো ঘটনাটি জানতে চেয়েছেন তাদের উদ্দেশ্যে কেশব লিখেছেন ‘যারা জানতে চেয়েছিলেন কি হয়েছে আমার সাথে। তিল তিল করে তৈরী করা স্বপ্নের রাজত্বের অবসান হলো। আজ আমি একা পরিচয় বিহীন কেশব। জন্ম পরিচয় থেকে শুরু করে গত কালকে পর্যন্ত তৈরী করা সবটুকুর অবসান ঘটল। ভালো থাকবেন সবাই।’

এরপর আরও একটি ভিডিও শেয়ার করে নিয়েছেন তিনি যে স্টুডিওতে বসে তারা রোজগার করত এবং আড্ডা দিত সেই ভিডিও শেয়ার করে তিনি লিখেছেন আর তো ফিরে পাবো না, রোজ ঘুমের শেষেও কখনো আর রাত জাগা হবেনা। স্বপ্নের মন্দির পুঁড়ে ছাই। নিজের হাতে করে গড়ে তোলা প্রত্যেকটা ইমোশন আগুনে পুড়ে শেষ হতে দেখলাম। হয়তো গড়তে পারবো আবার কখনো, কিন্তু ইমোশান গুলো ফিরবে Studio Music Planetanet এখন আর সংগীতের মন্দির নেই পুড়ে শেষ সব’।

তবে কি করে এই আগুন লাগল তা এখনও স্পষ্ট নয়। কেউ কি ইচ্ছা করে আগুন লাগিয়ে দিলো নাকি শর্ট সার্কিটে জ্বলে পুড়ে ছাই হয়ে গেল সবটুকু? তবে তার এই বিপদের দিনে পাশে এসে দাঁড়াবেন অনুরাগীরা এমনটাই কথা দিয়েছে সকলেই। তাকে আশ্বাস দিয়েছে স্নিগ্ধজিৎ এবং দেবাংশুরা আবার নতুন করে শূন্য থেকে শুরু করবে কেশব পাশে থাকবে অনুরাগীরা।

Back to top button