ভোটে জিতে মানুষের পাশে সোহম, বাড়ি বাড়ি গিয়ে অক্সিজেন, খাবার পৌঁছে দিচ্ছে তাঁর টিম

ভোটে জিতেই বিধায়করা কাজে লেগে পড়েছেন। অতিমারীর সঙ্গে লড়তে একে অপরের পাশে থেকে নিজের একশ শতাংশ দিয়ে সাহায্য করছেন সকলে। বিধায়ক পদ পেয়েই মাঠে নেমে পড়লেন সোহম চক্রবর্তী।

এর আগেও তিনি দুঃস্থ মানুষের পাশে দাঁড়িয়ছিলেন। বিতরণ করেছিলেন বিভিন্ন খাদ্যসামগ্রী।

এই কঠিন পরিস্থিতিতে টিম সোহম ও বরাহনগরের হাসি খুশি ক্লাবের যৌথ উদ্যোগে, করোনা রোগীদের পাশে সব রকম ভাবে থাকার চেষ্টা করা হচ্ছে।

বরাহনগর থেকে শুরু করে দমদম, শ্যামবাজার, কাশিপুর, বেলগাছিয়া, সোদপুর, ব্যারাকপুরে পরিষেবা দেওয়া হচ্ছে। উত্তর কলকাতার পাশাপাশি দক্ষিণ কলকাতায়ও সাধ্যমতো সাহায্য় পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করছেন তাঁরা।

বাড়িতে বাড়িতে শুধু খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়াই নয়। হাসপাতালে রোগীর পরিবারের জন্যও তৈরি খাবার হাতে হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে। কমন রুম ক্যাফের সহযোগীতায় এই খাবার পৌঁছে দিচ্ছে টিম সোহম।

হাসপাতালে বেড না পেলে তারা নিজেদের সাধ্য মতো বেড জোগাড় করে দেওয়ার চেষ্টা করছেন। এবং কোভিড রোগীদের নিয়ে হসপিটালে অ্যাডমিট করা থেকে শুরু করে অ্যাম্বুলেন্স এর ব্যবস্থা করা, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সব কাজ সামলাচ্ছেন টিম সোহমের সম্পাদক সুমন কর।

পরিবারের কেউ করোনা আক্রান্ত বাড়ি গিয়ে স্যানিটাইজ করিয়ে দিচ্ছেন তাঁরা। পরিবারের বাকি সদস্যদের খাদ্যসামগ্রী হাতে তুলে দিচ্ছেন।

ওষুধও পোঁছে দেওয়া হচ্ছে বাড়িতে বাড়িতে। যে সমস্ত রোগীর পরিবারের সদস্য হাসপাতালের বাইরে অপেক্ষা করছেন তাদের জন্য পার্সেল করে খাবার পৌঁছে দিচ্ছে সোহমের টিম।