টলিউড

তিন বছরের সম্পর্ক ভেঙে সিঙ্গেল অভিনেত্রী সোহিনী সরকার, নিজেকে ‘সিঙ্গল’ বলে দাবি সুপারস্টার সোহিনীর

টলিউডের জনপ্রিয় সেলব জুটি সোহিনী সরকার ও রনজয় বিষ্ণু বরাবরই প্রেম সম্পর্ক নিয়ে লুকোছাপা না করে অকপট সত্যি কথা বলেন। প্রায় তিন বছর ধরে তারা যখন একে অপরের সাথে সম্পর্ক যুক্ত ছিলেন তখনো তারা সম্পর্কের বিষয়টা কখনোই আড়াল করেননি। তবে সম্প্রতি তাদের সেই সম্পর্ক ভাঙ্গার ইঙ্গিত পাওয়া গেলো! নিজেকে হঠাৎ সিঙ্গেল বলে দাবি করলেন, যা দেখে নেটাগরিকরা দুয়ে দুয়ে চার করে নিয়েছেন।

তাদের সম্পর্ক নিয়ে কোনদিন‌ই কোন কিছু গোপন ছিলনা। মাঝে একে অন্যের সাথে বাড়িতে গিয়ে থাকতেন রনজয় আর সোহিনী। আবার মাঝেমধ্যে দুজনে আলাদাভাবেও একসঙ্গে থাকতেন, লকডাউনের সময়‌ও তারা একসাথেই কাটিয়েছিলেন। তাই স্বাভাবিকভাবেই গোটা ইন্ডাস্ট্রি তাদের ব্যাপারটা জানতো। সম্প্রতি সোহিনীর ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে বেজে উঠলো বিচ্ছেদের সুর। নিজের ইনস্টাগ্রাম স্টোরি’তে সোহিনী এমন কিছু লিখেছেন যা দেখে সকলে মনে করছেন যে প্রেম ভেঙে গেছে সোহিনী আর রনজয়ের। কী হলো হঠাৎ? আসলে ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে সোহিনী লিখেছেন, “Single and I am loving every single moment of it.” অর্থাৎ“ সিঙ্গেল আর আমি এর প্রতিটা মুহূর্ত দারুনভাবে উপভোগ করছি।”

অপরদিকে প্রেমিক রণজয় এখনো অবধি সেভাবে কোনো স্টোরি না দিলেও ফলোয়ার তালিকা থেকে রাতারাতি মুছে গিয়েছে প্রেমিকা সোহিনীর নাম। অর্থাৎ, প্রেমিক রনজয়কে আর ফলো করছেন না তিনি, তাকে আনফলো করে দিয়েছেন অভিনেত্রী। তবে এখনো পর্যন্ত দুজনের সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্টে একে অপরের সাথে কাটানো মুহূর্তগুলি ছবি ও ভিডিও রয়ে গেছে।

দুজনেই খুব ঘুরতে ভালোবাসতেন। তাই প্রায়ই দুজনে একসাথে ঘুরতে চলে যেতেন। রনজয়ের নতুন সিরিয়াল ‘গুড্ডি’র শুটিংয়েও গোটা টিমের সঙ্গে হাজির হয়েছিলেন সোহিনী। এমনকি গত মাসে রনজয়ের জন্মদিনেও রনজয় সোহিনীকে একসাথে দেখা গিয়েছিলো। তবে এই বছরের জানুয়ারি মাসে প্রান্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় ও অঙ্কিতা চক্রবর্তীর বিয়েতে সোহিনী উপস্থিত হলেও রনজয় যাননি। এরপরই অভিনেত্রীর এই পোস্টে জল্পনা ছড়িয়েছে।

যদিও সম্পর্ক ভাঙার বিষয়ে অভিনেতাকে জিজ্ঞেস করলে অভিনেতা সবটাই উড়িয়ে দিয়েছেন। সোহিনীর এই পোস্ট সম্পর্কে তাকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন ওগুলো শুধুই কথার কথা, শুধু মনের ভাব প্রকাশ করেছেন মাত্র। এছাড়া আরো বলেন যে তারা আগে যেমন একসঙ্গে ছিলেন এখনো তেমনি আছেন। একথা শুনে আশার আলো দেখছেন অনুরাগীরা, যদিও অভিনেত্রী সোহিনী সরকার এ বিষয়ে এখন‌ও অবধি মুখ খোলেননি। এই সমস্ত ঘটনাবলি দেখেই মনে করা হচ্ছে যে টলিউডে তাহলে বিচ্ছেদের হাওয়া বইতে শুরু করেছে!

Back to top button