টলিউড

কেকের শেষকৃত্যের পর লাইভে এসে আবেগ ধরে রাখতে না পেরে হাঁপুস নয়নে কাঁদলেন অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্র!

বৃহস্পতিবার দিন দুপুর দুটো নাগাদ মুম্বাইতে সমাপ্ত হয়েছে কেকের শেষকৃত্য। জনপ্রিয় এই গায়ক কে শেষ সম্মান জানাতে উপস্থিত ছিল বলিউডের সমস্ত তারকারা। এছাড়াও কেকে শেষকৃত্যে উপস্থিত ছিলেন অসংখ্য সাধারণ মানুষ। হাজার হাজার ভক্তদের উপচে পড়া ভিড় ছিল ওই দিন। ঐদিন বারবার নিজের বিভিন্ন সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন কলকাতা হলো তার প্রিয় শহর। আর সেই শহরেই যে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করবেন সেটা হয়তো জানতো না। হয়তো এটাই লেখা ছিল তার ভাগ্যে। আরো একজন নামি প্রিয় শিল্পীকে হারাল গোটা দেশ।

অন্যদিকে কলকাতায় রূপঙ্কর বাগচীর করা মন্তব্য নিয়ে বিরাট শোরগোল শুরু হয়ে গেছে। কেকের মৃত্যুর কয়েক ঘণ্টা আগেই লাইভে এসে কেকে কে নিয়ে নানান ধরনের মন্তব্য করেছিলেন বাংলার জনপ্রিয় গায়ক রূপঙ্কর বাগচী। তার মন্তব্য ঘিরেই তোড়পাড় গোটা সোশাল মিডিয়া। এরপর কেকে র মৃত্যু পরপরই তাকে নিয়ে সমালোচনার ঝড় দুটি দলে ভাগ হয়ে গেছে ইন্ডাস্ট্রি। এই ঘটনার পরে একদল তীব্র নিন্দায় মেতে উঠেছে তার এই সমালোচনা একেবারে সমর্থন করছেন না অনেকেই আর সেই দলে রয়েছেন অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্র। রুপংকরের ওপর রাগে ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন অভিনেত্রী।

কেকের শেষকৃত্য সম্পন্ন এরপর সোশ্যাল মিডিয়ায় লাইভে এসে রূপাঞ্জনা নিজের আবেগের কথা জানান। এবং কেকে সম্বন্ধে বলতে গিয়ে তিনি বারবারই কেঁদে ফেলেন। লাইভে এসে রূপাঞ্জনা জানান “আমি মানতে পারব না কেকে এর মৃত্যু। ভালো মানুষ ছিলেন বলেই হয়তো ঈশ্বরের কাছে চলে গিয়েছে তিনি প্রশ্ন করলেন অনুষ্ঠান শেষে যখন তিনি হেঁটে বেরচ্ছেন ওনার হাঁটাক মধ্যে অসংলগ্নতা কেউ লক্ষ্য করতে পারলেন না। নিংড়ে নেওয়া হয়েছে ওঁকে টাকা দিয়েছে বলে কুড়িটা গান গাইতে হবে। কেকে আমাদের কাছে আবেগের নাম আলাদা অনুভূতি।”

অভিনেত্রী আরো জানান “শেম অন ইউ রূপঙ্কর বাগচী, আপনি নিজের মনের সংকীর্ণতাকে সরান তারপক কেকে এর সঙ্গে তুলনা টানবেন নিজের,আপনার জাতীয় পুরস্কার পাওয়াটাই কাল, আগে বড় মনের মানুষ হন বাংলার শিল্পী হিসেবে কতটা ছোট মনের পরিচয় দিলেন, আগে বড় মনের মানুষ হোন, আপনাকে ধিক্কার! কেকে তাঁর গয়কী দিয়ে আমাদের মন জয় করেছেন।এভাবে তাঁকে ছোট করার অধিকার কেউ দেয়নি আপনাকে।”

Back to top button