টলিউড

“সব বলে দেব! কিছুটা ব্যক্তিগত থাক” – দক্ষিণ কলকাতার নামি রেস্তোরায় রাহুলের জন্মদিন উদযাপন করলেন অভিনেত্রী রুকমা! কিন্তু তাঁদের আর কি বলার বাকি রয়েছে?

বর্তমানে টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেতা রাহুল বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিনেতাকে নিয়ে বর্তমান সময় দাঁড়িয়ে জল্পনার শেষ নেই। একবার কেউ ভাবছেন যে অভিনেত্রী সুদীপ্তার সঙ্গে ছিল তাঁর সম্পর্ক। আবার পরক্ষণেই কেউ ভাবছেন অভিনেত্রী রূকমার সাথে তাঁর সম্পর্ক রয়েছে। যদিও সেসব কথা আজকের জন্য বাদ। অভিনেতার জন্মদিন নিয়ে বেশ মাতামাতি দেখা গিয়েছে অভিনেতার বন্ধু মহলে। দক্ষিণ কলকাতার একটি নামই রেস্টুরেন্টে সাদা, কালো, বেগুনি রংয়ের বেলুন দিয়ে সুসজ্জিত করা হয় রাহুলের জন্মদিনের জন্য। আর টেবিলে সাজানো হয় কেক। পুরো ব্যবস্থাটির আয়োজন করেন অভিনেত্রী রুকমা এবং তাঁর পুরো টিম। শুটিংয়ে ব্যস্ততার ফাঁকেই প্রিয় বন্ধুর জন্য আয়োজন করে ফেলেছেন অভিনেত্রী। ছবিতে কখনো তাঁদেরকে নিজস্বী নিতে দেখতে পাওয়া গেছে। আবার কখনো দেখতে পাওয়া গেছে রাহুলের বাহুডোর এর মাঝে দাঁড়িয়ে রয়েছেন রুকমা। আর রাহুল তাঁকে জড়িয়ে ধরে গালে চুম্বন করছেন।

নিজের জন্মদিনের সারপ্রাইজ প্ল্যান নিয়ে অভিনেতা রাহুল বলেন, “সবাই বলছিল বিজয়া সম্মিলনী। কিন্তু আমি বেশ আঁচ করতে পারছিলাম যে জন্মদিন উপলক্ষেই ওরা কিছু পরিকল্পনা করছে। আমি অবশ্য না জানার ভান করেছিলাম”। অবশ্য অভিনেতা বন্ধুদের সাথে, কাছের মানুষদের সাথে জন্মদিন উদযাপন করেছেন বেশ আনন্দের সাথেই।

পুরো জন্মদিনের আয়োজন প্রসঙ্গে অভিনেত্রী রূকমা বলেন, “দক্ষিণ কলকাতার এক রেস্তঁরায় জমিয়ে খাওয়াদাওয়া হয়েছে। মূলত দক্ষিণী খাবার। আমার আর রাহুলদার একটা নির্ভেজাল বন্ধুত্ব আছে। সেই বন্ধুত্ব থেকেই অনেক শুভ কামনা রাহুলদার জন্য”। খাওয়া-দাওয়া তো হল কিন্তু জন্মদিন অসম্পূর্ণ থেকে যায় যদি না উপহার দেওয়া যায়। তাহলে কি উপহার দিলেন অভিনেত্রী তাঁর বিশেষ বন্ধুকে? অভিনেত্রী বললেন, “একটা বই দেব”। আমাদের সকলেরই জানা রাহুল বই পড়তে বড্ড ভালোবাসেন। তো এমন একটা উপহার পেলে অভিনেতা যে খুশি হবেন তা বলাই যায়। কোন লেখক এর বই উপহার দিচ্ছেন অভিনেত্রী? রুকমা বলেন, “সব বলে দেব! কিছুটা ব্যক্তিগত থাক।”

জন্মদিন আয়োজনের আঁচ অভিনেতা আগেই পেয়েছিলেন। তবে জন্মদিন উদযাপন নিয়ে অভিনেতা বলেন, “এমন ভাবে উদ্‌যাপন করতে বেশ লজ্জা লাগে। তবে সবার উৎসাহ দেখে মন্দ লাগেনি। রবিবার শ্যুটিংয়ের পর স্কুলের বন্ধুদের নিয়ে খাওয়াদাওয়া হবে। সহজ আসতে পারছে না। ও মায়ের সঙ্গে রামপুরহাট গিয়েছে শ্যুটিংয়ে। রাত হবে ফিরতে। সোমবার উদ্‌যাপন করা হবে”। দেখতে দেখতে ৩৯ বছর পার করলেন রাহুল। তবে এখনও অনেক পথ চলা বাকি, অনেক কাজ করা বাকি।

Back to top button