টলিউড

এত বছর পরেও ভালোবাসার রং উজ্জ্বল, এ বছর দুর্গাপূজায় নবমীতে স্ত্রী দোলন রায় কে নিয়ে মধ্যাহ্নভোজন কলকাতার নামে রেস্টুরেন্টে লাঞ্চ ডেটে অভিনেতা দীপঙ্কর দে

কথায় আছে ভালোবাসা কখনো স্থান কাল পাত্র সময় দেখে হয়না। আর ভালোবাসায় বয়স একটা সংখ্যা মাত্র। টলিউডে এরকম বহু জুটি রয়েছে যাদের মধ্যে বয়সের পার্থক্য অনেক, কিন্তু একে অপরের ভালোবাসার টানে তারা সংসার বেধেছে, সমাজের পরোয়া না করেই তারা একে অপরকে জীবনসঙ্গী হিসেবে বেছে নিয়েছেন। সেরকমই একটি জনপ্রিয় জুটি হলো দীপঙ্কর দে এবং দোলন রায়ের জুটি।

দীপঙ্কর বাবুর বয়স ৭৭ এবং দোলনের ৫১, অনেক বয়সের পার্থক্য রয়েছে দুজনের মধ্যে, তবুও নিজেদের ভালোবাসার টানে দীর্ঘদিন লিভ ইন সম্পর্ক থাকার পর অবশেষে সাত পাকে বাঁধা পড়েছেন এই জুটি। এবার পূজোতে নিজেদের মতো করে সময় কাটিয়েছেন এই জুটি। স্ত্রীকে কলকাতার নামী ফাইভ স্টার হোটেলে মধ্যাহ্নভোজের জন্য নিয়ে গিয়েছিলেন দীপঙ্কর বাবু এবং সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন নিজে।

দীর্ঘ ২২ বছর ধরেই লিভ ইন সম্পর্কে ছিল এই জুটি। তার পর অবশেষে ২০২০ সালে নিজেদের সম্পর্ককে বৈবাহিক রূপ দেয় দীপঙ্কর এবং দোলন। নিজেদের এই সিদ্ধান্তে কম কটাক্ষ সম্মুখীন হতে হয় নি দুজনকে, তবুও সমস্ত বাধা পেরিয়ে দুজনে শক্ত হাতে এগিয়ে গিয়েছে নিজেদের সুন্দর জীবনের দিকে।

নবমীর দুপুরে কলকাতার নামী রেস্টুরেন্ট আইটিসি সোনারে মধ্যাহ্নভোজন সারলেন দীপঙ্কর দোলন। ঐদিন দোলনের পরনে ছিল গোলাপি রঙের শাড়ি এবং দীপঙ্কর পড়েছিলেন নীল রঙের একটি টি-শার্ট। তবে বাঙালি নয় চাইনিজ কুইজিন এর সঙ্গে টেবিলে ছিল তাদের পছন্দের পানীয়। ৯০ দশকে অভিনয় জগতে কাজ করতে গিয়ে দীপঙ্কর বাবুর সঙ্গে আলাপ হয় দোলনের। তখন থেকেই ভালোলাগা দীপঙ্করের প্রতি। কিন্তু কোনদিনও ভবিষ্যতে যে এই মানুষটির সঙ্গে সংসার করবেন তা ভাবতে পারেনি। দীপঙ্করের তখন সবেমাত্র তার প্রাক্তন স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটেছে। ইন্ডাস্ট্রিতে দারুন স্ট্রাগল করে চলেছিল এই মানুষটির, সেই সময় থেকেই দোলন পছন্দ করত দীপঙ্কর কে।

দীর্ঘ ২২ বছর লিভ ইন সম্পর্কে থাকার পর গত বছর সাত পাকে বাঁধা পড়েছিল এই জুটি। এই বছর জানুয়ারি মাসের প্রথমেই প্রথম বিবাহ বার্ষিকী পালন করে তারা এত বছর পরেও ভালোবাসা আজও অটুট। বয়স যে শুধুমাত্র একটি সংখ্যা এই জুটি স্পষ্ট বুঝিয়ে দিয়েছেন তাদের সম্পর্কের কথা সামনে আসার পর অনেক কটুক্তি সমালোচনা মন্তব্য উঠে এসেছিল সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সেই সমস্ত কিছুতেই কর্ণপাত করেনি বরং দীপঙ্কর বাবু জানিয়েছিলেন “আমরা নিজেদের ইচ্ছেমতো ভালোবেসেছি নিজেদের ইচ্ছায় বিবাহ করেছি তাতে কারো কিছু যায় আসার কথা নয়।”

টলিউডের বড় পর্দা এবং ছোটপর্দাতেই সমানভাবে কাজ করেছেন দোলন এবং দীপঙ্কর। বর্তমানে ছোট পর্দায় দেখা যায়। জি বাংলা ‘জীবন সাথী’ ধারাবাহিকে দুজনকে একসঙ্গে কাজ করতে দেখা গিয়েছে।

Back to top button