বিনোদন

তিন তিনবার গর্ভের সন্তান নষ্ট করতে বাধ্য করেছিলেন শাকিব! স্বামী শাকিব খানের বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন মিডিয়ার সামনে

বর্তমানে বাংলাদেশী অভিনেত্রী পরীমনি কে নিয়ে বেশ সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে। প্রায় দিনই এই বাংলাদেশী অভিনেত্রী কে নিয়ে নতুন নতুন খবর ছাপা হচ্ছে। কিছুদিন আগেই পরিমনির হয়ে শাকিব খান পরিমনির সমর্থনে একটি পোস্ট শেয়ার করেন।

তিনি পোস্টে বলেন পরীমনি নিজের জীবনে কিছু ভুল সিদ্ধান্ত নেওয়ার ফলে আজ এত বড় বিপদের মুখোমুখি হয়েছে, তার এই পোস্ট দেখে স্পষ্ট যে তিনি পরিমনির পাশে রয়েছেন। তবে এবারে পরীমনি শাকিব খানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলেন।

একটি সাক্ষাৎকারে শাকিব খানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ তুলে ধরে। অপু একসময় শাকিব খানের সাথে তিনি চুপিসারে বিয়ে ছেড়েছিলেন। তাদের দুজনের বিয়েতে সাক্ষী ছিলেন পরিমনির মেজ বোন এবং শাকিব এর কাজিন মনির যিনি কিনা শাকিবের সেক্রেটারি ম্যানেজার এবং এক প্রযোজক।

বিয়ের পরে পরীমনি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে হওয়ার পরে শাকিব তাকে হুমকি দেয় তিনি যাতে গর্ভপাত করে ফেলেন কারণ শাকিবের সাথে সংসার করতে গেলে নাকি গর্ভবতী হওয়া চলবে না। কিন্তু শাকিবের মা বলেন অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে ডিভোর্স দেওয়ার নিয়ম ইসলাম ধর্মে নেই। এ কারণেই সন্তান জন্ম নেওয়ার পরে যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার নিতে হবে সাকিবকে।

এর আগে শাকিবের চাপে পড়ে অপুর তিন তিনবার গর্ভপাত করেন কিন্তু চতুর্থ সন্তানের বেলায় তিনি গর্ভপাত করতে রাজি হননি পরে তিনি একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন, যা শাকিব কে খুশি করতে পারেনি। এমনকি অপু তার পুত্র সন্তানের জন্ম দেওয়ার পরে তার শ্বশুরবাড়ি থেকে কেউ তাদের একজন কেউ দেখতে আসেনি। শাকিব এবং তার পরিবারের এই ধরনের অবহেলা অপু একদমই সহ্য করতে পারেনি পরে নিজের সন্তানকে বালা এবং সোনার চেইন বানিয়ে দিয়েছিল অপু। শাকিব নিজের হাতে পরিয়ে দিয়েছিল ছেলেকে, কিন্তু পরে এই বিবাহ আর বেশিদিন টেকেনি ফলে কিছুদিনের মধ্যেই দুজনের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে।

Back to top button