বলিউড

মুক্তির আগেই কোটি কোটি টাকা ক্ষতির মুখোমুখি হলো RRR টিম, কষ্টে ঘর থেকে বাইরে বার হচ্ছেন না রামচরণ ও জুনিয়র এনটিআর

দেশে আরও একবার করোনার গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী। প্রথম ঢেউ, দ্বিতীয় ঢেউয়ের পরে এবারে দেশে আছড়ে পড়েছে তৃতীয় ঢেউ এর প্রভাব। করোনার প্রথম এবং দ্বিতীয় ঢেউ বিনোদন জগতে ব্যবসায় দারুন ক্ষতি হয়েছিল। দিনের-পর-দিন সিনেমা হলগুলো বন্ধ থাকায় ব্যবসা বন্ধ ছিল যার ফলে ইন্ডাস্ট্রি অনেক বড় অংকের ক্ষতির মুখে ছিল। তারপরে শেষ একমাস দুমাসের জন্য সিনেমা হলগুলো খোলা হয়েছিল ফের আরও একবার ঊর্ধ্বমুখী হল করোনা এবং ওমিক্রন এর আক্রমণ গ্রাফ মহারাষ্ট্রের সবথেকে বেশি ঊর্ধ্বমুখী।

এদিকে নতুন বছরের শুরুতেই ৭ই জানুয়ারি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল এস এস রাজামৌলির ছবি ‘আরআরআর’। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে ফের আরো একবার পিছিয়ে গেলো ছবির মুক্তির ডেট। যার ফলে বিরাট ক্ষতির মুখে পড়েছে ছবির পুরো টিম। রাম চরণ, জুনিয়র এনটিআর, অজয় দেবগণ এবং আলিয়া ভাটদের অনেক জনপ্রিয় তারকা এই ছবির প্রচারের জন্য বেরিয়েছিল। আর এই প্রচারের কাজের জন্য কম করে ১৮ থেকে ২০ কোটি টাকা খরচ হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। এছাড়াও রাম চরণ এবং জুনিয়র এনটিআরের অনুরাগীদের অন্ধপ্রদেশের বাইরে প্রচারের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে সেখানেও ২-৩ কোটি টাকা খরচ হয়ে গিয়েছে। আর এই কারনেই মুক্তি ডেট পিছিয়ে যাওয়ায় এবং করুণা বিধিনিষেধের জন্য সিনেমা হলগুলো বন্ধ হয়ে যাবে বিরাট ক্ষতির মুখে পড়েছে পুরো টিম।

দা কাপিল শর্মা শর্মা, বিগ বস এবং কেবিসির মতো বড়-বড় রিয়্যালিটি শোতেও প্রচারের জন্য এসেছিল আরআরআর টিম। রামচরণ এবং জুনিয়র এনটিআর দক্ষিণী অভিনেতা। এই ছবির প্রচারের জন্য অসংখ্য অনুরাগীরাও ঘুরে বেরিয়েছে তবে সমস্ত কিছু বৃথা চলে গেল এই লকডাউন এর কারণে।

সূত্রের খবরে জানা গেছে পরিচালক-প্রযোজক সকলেই ভেঙে পড়েছে এই পরিস্থিতিতে। এত কষ্ট করে প্রচার প্রচার সমস্ত কিছু শেষ হয়ে যাওয়ার পর যখন এরকম পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয় তখন সত্যি মানুষের মন ভেঙে যায়।

Back to top button