“চার-পাঁচটা গান গাইলেই কেউ বিচারক হয়ে যায় না” ইন্ডিয়ান আইডল এর বিচারকদের বিষয়ে মন্তব্য করে নতুন বিতর্ক তৈরি করলেন গায়ক অভিজিৎ

সোনি টিভির জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো ইন্ডিয়ান আইডল ১২ এর বিতর্ক যেন পিছু ছাড়ছে না। কখনো শো এর প্রতিযোগীদের নিয়ে বিতর্ক আবার কখনো কোনো বিশিষ্ট অতিথি এসে নতুন বিতর্ক তৈরি করেন।

এখন আবার গায়ক অভিজিৎ নতুন বিতর্ক তৈরি করেছেন। তিনি বলেন “এই শোটি বিতর্কিত হবেনাই বা কেন, এখানে সব বড় বড় মাতম্বর বসে আছেন। যারা দু চারটি গান গেয়েই নিজেদের বড় বিচারক হিসেবে দাবি করে থাকেন।”

সম্প্রীতি দিনকয়েক আগে অভিজিৎকে ইন্ডিয়ান আয়ডলের মঞ্চে বিশেষ অথিতি হিসেবে উপস্থিত থাকতে দেখা যায়। একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ইন্ডিয়ান আইডল’-এর নির্মাতাদের কাছ থেকে তিনি প্রাপ্য সম্মান পেয়েছেন।

তিনি তাঁদের কাছে কাজ চাননি। অভিজিৎ-এর প্রাপ্য টাকাও তাঁরা দিয়েছেন এবং অভিজিৎ মনে করেন তাঁকে সৎভাবে প্রতিযোগীদের বিচার করার সুযোগ দেওয়া হয়েছিল এই শোয়ে।

অভিজিতের মতে যারা সারাজীবনে মোটে কয়েকটি গান গেয়ে জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন তারা কোনোভাবেই গানের জগৎকে সমৃদ্ধ করেন না। বরং তাদের কোনো যোগ্যতাই নেই কাউকে বিচার করার। সেই সমস্ত মানুষদেরই এই শোয়ে বিচারক হিসেবে রাখা হয়েছে।

তার আরো অভিযোগ, পুরোনো গান রিমিক্স করে আদতে শিল্পী নিজের কমতি গুলোই তুলে ধরছে সবার সামনে। আগেকার হিট গান গুলোকে চুরি করে তাদের রিমিক্স বানিয়ে নেওয়া এজন শিল্পী হিসেবে জঘন্য কাজ। এই কাজকে অনু মালিকের মত সঙ্গীত শিল্পীও সমর্থন করেন না।

অভিজিৎ-এর মতে, অনেকেই এইসব রিয়েলিটি শোয়ে এসে নিজের অ্যালবামের প্রচার করার জন্য প্রতিযোগীদের ব্যবহার করেন। ফলে অভিজিৎ মনে করেন, তাঁর মতো বিচারক রিয়েলিটি শোয়ের জন্য যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। তার মতে প্রতিযোগীরা এত প্রতিভাবান যে তাদের সত্যি একজন আসল গুরুর প্রয়োজন।

যদি তারা আসল একজন গুরু পেয়ে যায় তাহলে তাদের ভবিষ্যত সুন্দর বানাতে কেউ আটকাতে পারবে না। অনেকদিন আগে কিশোর পুত্র অমিত কুমার এই শো তে এসেছিলেন। এখানে আসার পর একটা সাক্ষাৎকারে তিনি সমস্ত পর্দা ফাঁস করেদেন এমনকি তিনি এও জানান শো টির জনপ্রিয়তা ধরে রাখার জন্য এখানে প্রতিযোগীদের মধ্যে প্রেমের গল্পও তৈরি করা হয়। এই কথা বলে বেশ বিতর্ক সৃষ্টি করেন তিনি।