চিকিৎসায় সব টাকা খরচা হয়ে গেছে, করোনায় আর্থিক অনটনে শাহিদ কাপুরের সৎ বাবা

শাহিদ কাপুর বলিউডের অন্যতম পরিচিত মুখ। সেই শাহিদ কাপুরের সৎ বাবা ও তার পরিবার অর্থকষ্টে ভুগছেন এই করোনা পরিস্থিতিতে। শারীরিক অসুস্থতার কারণে সমস্ত সঞ্চিত অর্থ শেষ হয়ে গেছে এমনটাই জানাচ্ছেন খট্টর পরিবার।

শাহিদ কপূরের মা নীলিমা আজিম ও বাবা পঙ্কজ কপূরের বিবাহবিচ্ছেদের পর নীলিমা আজিম রাজেশ খট্টরকে বিয়ে করেছিলেন।

তাদের ছেলে অভিনেতা ঈশান খট্টর। নীলিমা আজিমের সঙ্গে পরবর্তীকালে ছাড়াছাড়ি হয়ে যাবার পর অভিনেত্রী বন্দনা সাজনানি কে বিয়ে করেছিলেন রাজেশ খট্টর।

রাজেশ খট্টর-এর পরিবার বর্তমানে প্রবল অর্থ কষ্টের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। তাদের এতদিনের জমানো সব টাকা চিকিৎসার পেছনে চলে গেছে এই করো না পরিস্থিতিতে।

রাজেশ খট্টর নিজে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। পরে তিনি সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরে এলো তার বাবাকে বাঁচানো যায়নি। চিকিৎসার পেছনে টাকা জলের মতো খরচা হয়ে গিয়েছে তবুও বাঁচানো যায়নি তার বাবাকে।

হাসপাতলে বেড পেতে অনেক কাঠ-খড় পোড়াতে হয়েছিল রাজেশ ও তার স্ত্রী বন্দনাকে। করোনার প্রথমাবস্থায় বন্দনা অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। পরে তাদের ছেলেকে আইসিইউতে ভর্তি করতে হয়েছিল শারীরিক কারণে । এমনটাই জানিয়েছেন অভিনেত্রী বন্দনা।

করোনার জন্য আগের বছর বেশ কয়েক মাস চলেছে লকডাউন। আনলক হওয়ার পর থেকে এখনো পর্যন্ত তার হাতে সেরকম কোনো কাজ নেই।

২০২০ থেকে ২০২১-এর মধ্যে মাত্র একটি অ্যাডেই কাজ করেছেন। বর্তমানে তার হাতে কোন কাজ নেই। অভিনেত্রী বন্দনা নিজেই জানালেন তার এবং তার পরিবারের আর্থিক অনটনের কথা।