‘প্রথম দেখায় সালমানকে অভদ্র মনে হয়েছিল’, প্রকাশ্যে স্বীকারোক্তি আমির খানের!

বলিউডের তিন খানের মধ্যে একজন হলেন আমির খান (Amir Khan)। তিনি তো একজন বিখ্যাত অভিনেতা বটেই, পাশাপাশি মিস্টার পারফেকশনিস্ট নামেও পরিচিত এই অভিনেতা। বাকি অভিনেতাদের মত তিনি খুব একটা বেশি ছবি করেননি ঠিকই, কিন্তু তাঁর অভিনয় সবসময়ই আলাদা পর্যায়ের মাহাত্ম্য রাখে। তিন অভিনয়ের মাধ্যমেই মানুষের মনে নিজের জন্য আলাদা করে জায়গা বানিয়ে নিয়েছেন। অভিনয়ের পাশাপাশি আমির খানের একটি নিজের প্রযোজনা সংস্থাও রয়েছে। তবে বর্তমানে তাঁকে খুব একটা বড় পর্দায় না দেখা গেলেও, তিনি বরাবরই প্রথাগত কমার্শিয়াল ছবির বাইরে ভিন্ন স্বাদের ছবি করতে পছন্দ করেন।

তাঁর ছবির তালিকায়, ‘লাগান’ (Lagaan), ‘থ্রী ইডিয়টস’ (3 Idiots), ‘তারে জামিন পর’ (Tare Zameen Par) ইত্যাদি ছবিতে তাঁর অভিনয় বিশেষ উল্লেখযোগ্য। তাই তো এই ছবিগুলো বর্তমানে অন্যান্য হিট ছবির তালিকায় শীর্ষে রয়েছে। যেখানে তিনি নিজের অনবদ্য অভিনয় দিয়ে দারুণভাবে তুলে ধরেছেন পর্দায় তাঁর বিভিন্ন চরিত্রকে। বলিউডের একাধিক জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও অভিনেতাদের সঙ্গে দাপিয়ে কাজ করেছেন আমির খান। এইভাবেই তাঁর সঙ্গে অনেক অভিনেতার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল।

তবে বন্ধু এমন একটা বিষয় কোনো স্থান কাল ভেদে নয়, যখন তখন যে কারো সঙ্গে আপনার বন্ধুত্ব হয়ে যেতে পারে। আবার কখনও যাকে আপনি একদম পছন্দই করতেন না, তিনিও কোনো বিশেষ কারণে আপনার প্রাণের বন্ধু হয়ে উঠতে পারে। বন্ধুত্বের কোনো বয়স নেই, যেকোনো বয়সের মানুষই আপনার বন্ধু হয়ে উঠতে করে, সেক্ষেত্রে সবার আগে প্রয়োজন মনের মিল হওয়াটা। তবে আজ আপনাদের এরকম এক বন্ধুত্বের সম্পর্কের কথাই জানাবো, যারা দুজন বলিউড অভিনেতা। একজনের সম্পর্কে তো আলোচনা হচ্ছেই আরেকজন কে চলুন জেনে নেওয়া যাক!

যদিও অনেকের মতে বলিউডের তারকাদের মধ্যে ভালো সম্পর্ক খুব একটা দেখা যায়না। কিন্তু এটা ধারণা ভুল প্রমাণ করে দিয়েছেন আমির ও বলিউডের ভাইজান সালমান খানের (Salman Khan) বন্ধুত্ব, যা সত্যিই প্রশংসনীয়। তবে শুরু থেকেই নয় তাঁদের মধ্যে এই বন্ধুত্বপূর্ণ সুসম্পর্ক গড়ে ওঠে আমির ও সালমান অভিনীত ‘আন্দাজ আপনা আপনা’ ছবি থেকে, যা ১৯৯৪ সালে মুক্তি পেয়েছিল। এই ছবিতে একত্রে কাজ করেছিলেন এই দুই খান অমর ও প্রেম চরিত্রে। এই ছবির শুটিং সেটেই প্রথম দেখা হয়েছিল সালমান ও আমির খানের। কিন্তু আমিরের কথায়, তিনি প্রথমবার সালমানকে দেখে অভদ্র আর বুদ্ধিহীন বলে মনে করেছিলেন।

এমনকি ছবিতে সালমানের সঙ্গে আমিরের কাজের অভিজ্ঞতাও ভালো ছিল না। একথা একবার সাক্ষাৎকারে নিজেই বলেছিলেন আমির খান। তবে পরিবর্তীকালে সেসব ধারণা ভুল প্রমাণিত করে অভিনেতা নিজেই বলেন যে, কিভাবে সালমানের সঙ্গে এত সুন্দর একটি বন্ধুত্ব গড়ে উঠল তা নিজেই বুঝতে পারেনি আমির। তবে বর্তমানেও সালমান ও আমিরের বন্ধুত্ব বেশ প্রসংশনীয়।