বলিউডStory

বাবার সাথে শারীরিক সম্পর্ক, পরে স্বামীকে ডিভোর্স দিয়ে একাধিক প্রেম! আলিয়া ভাট এর দিদির জীবন সিনেমা কেও হার মানাবে

বলিউডের অন্দরমহলে এমন অনেক ঘটনা কিংবা বলা ভালো কেচ্ছা রয়েছে যা জানলে রীতিমত অবাক হতে হয়। বলিউড মানেই এক বিশাল সমুদ্র। যেখানে প্রতিনিয়ত প্রতিদিন হারিয়ে যাচ্ছে অনেকেই। এই বলিউডেরই অন্যতম স্বনামধন্য চিত্রপরিচালক হলেন মহেশ ভাট। তার প্রাক্তন স্ত্রী লরেন ব্রাইটের মেয়ে পূজা ভাট। একসময় এই বাবা মেয়ের সম্পর্ক নিয়ে শোরগোল পড়েছিল গোটা বলিউড মহলে। শোনা গিয়েছিল মেয়ের সাথে প্রেম করছেন তিনি।

ঐ সময়ে একটি নামী কোম্পানির ম্যাগাজিনের কভার ফটোতে পূজা ভাট এবং তার বাবা মহেশ ভাটকে লিপ লক করতে দেখা গিয়েছিল। সেই ছবি সামনে আসার পর থেকেই জল্পনা শুরু হয়েছিল বলিউডের আনাচে-কানাচে। এই প্রসঙ্গে পরিচালক বলেছিলেন, যদি পূজা তার মেয়ে না হতো তাহলে তিনি তাকে বিয়ে করে নিতেন। তার এই মন্তব্য নিয়ে সমালোচনা চলেছিল বহুদিন। বাবা-মেয়ের সম্পর্ক অত্যন্ত নির্ভেজাল একটি সম্পর্ক। যাতে দাগ লাগিয়েছিলেন তারা।

‘ড্যাডি’ ছবির হাত ধরে বলিউডে অভিষেক ঘটেছিল পূজা ভাটের। এরপর আমির খানের বিপরীতে ‘দিল হে কে মানতা নেহি’ ছবিতে অভিনয়ের পর জনপ্রিয়তার চূড়ায় পৌঁছে গিয়েছিলেন পূজা ভাট। পরিচিতি বেড়েছিল দ্বিগুণ। এরপর থেকে একাধিক জনপ্রিয় সিনেমায় অভিনয় করেছেন এই অভিনেত্রী। সেই সময়ে একাধিক সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন পূজা ভাট।

বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন রণবীর শোরের সঙ্গে। অভিনয়ের সূত্র ধরেই আলাপ হয়েছিল তাদের। পরে তাদের বন্ধুত্ব হয়। তার বেশ অনেক দিন পরেই তারা সিদ্ধান্ত নেন তারা বিয়ে করবেন। তবে তাদের এই বিবাহিত জীবন বেশিদিন টেকেনি। তিনি অভিযোগ করেছিলেন মদ্যপানের পর তিনি তাকে মারধোর ও গালিগালাজ করতেন। তবে এর পরেও তিনি একাধিক সম্পর্কে জড়িয়েছেন। পর ২০০৩ সালে তিনি আবার বিয়ে করেছিলেন। তবে সেই বিয়ে ১১ বছর পর ভেঙে যায়।

পূজা ভাটের সঙ্গে আলিয়া ভাটের সম্পর্ক ভালোই। দুজনেই দুজনের সাফল্যে খুশি হন। তবে একাধিকবার মিডিয়াতে এই প্রসঙ্গ উঠেছে যে মহেশ ভাট ও পূজা ভাটের মেয়ে হলেন আলিয়া ভাট। এই জল্পনা বারবার উড়িয়ে দিয়েছেন তারা। তবে এখন এই নিয়ে সংশয় রয়েছে অনেকের মনেই।

Back to top button