বলিউডStory

খারাপ হিন্দির জন্য ইন্ডাস্ট্রিতে অনেক অবহেলা সহ্য করেছেন নোরা ফাতেহি! ‘সার্কাসের মেয়ে’ থেকে নোরা আজ বলিউড সুপারস্টার

বর্তমান প্রজন্মের কাছে নোরা ফাতেহি নামটা বহুল পরিচিত। এখন বলিউডের আইটেম ডান্স মানেই নোরা ফাতেহির নাচ। বলিউডে আইটেম ডান্সের কথা উঠলেই সমস্ত পরিচালকদের কাছে প্রথম অপশন নোরা ফাতেহি। সোশ্যাল মিডিয়ার সেনসেশন নোরা। বর্তমানে তার জনপ্রিয়তাও নেহাত কম নয়। নোরা ফাতেহির নাম উঠলেই ‘দিলবার’, ‘ও সাকি সাকি রে’, ‘হায় গার্মি’, ‘কোকা কোলা’ ইত্যাদি গানে তার নাচের দৃশ্য।

এখন নোরা ফাতেহির নাচে মুগ্ধ দর্শকসহ গোটা ইন্ডাস্ট্রি। আজকের দিনে দাঁড়িয়ে দেখলে নোরা ফাতেহি এই মুহূর্তে জনপ্রিয়তার শিখরে বসে রয়েছেন। তবে এই ছবিটা শুরু থেকেই এমন ছিলনা। তাকে সহ্য করতে হয়েছে অনেক অবহেলা। শুরুতে শুরুতে ঠিক করে হিন্দিটা পর্যন্ত বলতে পারতেন না অভিনেত্রী। তার হিন্দি কথা শুনে রীতিমত হাসাহাসি করতেন সকলে।

ভারতে আসার পর বিজ্ঞাপন দিয়ে নিজের ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন নোরা ফাতেহি। একের পর এক বিজ্ঞাপনে কাজ করে গেছেন ঐ সময়ে। অনেকসময় বিজ্ঞাপনে কাজ করার পরেও পারিশ্রমিক পেতেন না নোরা। তার হিন্দি বলা যেহেতু স্পষ্ট ছিল না তাই অডিশন দেওয়ার পরেও সুযোগ পেতেন না ছবিতে। বাদ পড়তে হতো বেশিরভাগ ছবি থেকেই।

এই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে নোরা ফাতেহি বলেছিলেন, “হিন্দি শিখতে শুরু করেছিলাম। কিন্তু অডিশনের সময় ভয়ানক অবস্থা হত আমার। মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকতাম না। নিজেকে খুব বোকা মনে হত। কিন্তু কিছু মানুষ তো ক্ষমা করেন না। সামনাসামনি হাসাহাসি করতেন তারা। বলতেন, আমি সার্কাস থেকে এসেছি। আমাকে বুলি করেছেন তারাই। বাড়ি ফেরার সময় কাঁদতাম।”

তিনি এও জানান কাস্টিং এজেন্সির লোকজন তার ওপর চিৎকার-চেঁচামেচি করতেন। তাকে দেখলেই তারা বলতেন তাকে তাদের দরকার নেই বলে চলে যেতে বলতেন। তবে এসব কথা আর মনের মধ্যে চেপে রাখেননি নোরা ফাতেহি। অনেক ওটা পড়ার মধ্যে দিয়ে হলেও আজ তিনি নিজের একটা পাকাপোক্ত জায়গা করে নিতে পেরেছেন বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে। যেখানে চলছে প্রতিনিয়ত টিকে থাকার লড়াই। বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে টিকে থাকতে গেলে পরিশ্রমের পাশাপাশি লাগে ভাগ্যও।

পাঁচ বছর আগেকার নোরা ফাতেহির সঙ্গে বর্তমানের নোরা ফাতেহির পার্থক্য অনেকটাই। তা নিজেই স্বীকার করেছেন নোরা। এখন সমস্তটাই নিজের মতো করে খুব সহজেই সামলে নিতে পারেন তিনি। বর্তমানে তার অনুরাগীর সংখ্যা অসংখ্য। এখন তারা নোরা ফাতেহিকে পর্দায় একবার দেখার জন্যে উদগ্রীব হয়ে অপেক্ষা করে থাকেন।

Back to top button