বলিউডStory

বলিউড আঁতুড়ঘর নেপোটিজমের! অজয় দেবগনের সামনে মাথা নোয়াতে বাধ্য হয়েছিলেন করণ জোহার

বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে বিতর্কের অন্যতম একটি বিষয় হল নেপোটিজম। এই মেয়ে প্রজন্মের জন্য বহু তরুণ তারকা প্রাণ হারিয়েছে বহু বার। গত বছর সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু নাড়িয়ে দিয়েছিল গোটা বলিউড ইন্ডাস্ট্রিকে। সেই সময় নেপোটিজম কান্ডে নাম জড়িয়েছিল কারাণ জোহারের। সেই সময় বলিউড ইন্ডাস্ট্রি দুটি ভাগে ভাগ হয়ে গিয়েছিল। পরবর্তীকালে তা ধামাচাপা পড়ে যায়।

বলিউড ইন্ডাস্ট্রি এক বিশাল সমুদ্রের মত। চট করে কেউ এই জলে ডুব সাঁতার দিয়ে বেঁচে থাকতে পারেনা। হারিয়ে যায় বহু তরুণ অভিনেতা অভিনেত্রী। খুব কম মানুষ আছেন যারা এই পুরো সমুদ্র সাঁতরে পার করতে পারেন। কারাণ জোহারের উপর নেপোটিজমের অভিযোগ আজকের নয় বহুদিনের।

তবে বলিউডে এমন অনেক অভিনেতা রয়েছেন যারা কখনোই কারাণ জোহারের পায়ে তেল দিয়ে চলেননি। সেই সমস্ত অভিনেতাদের মধ্যে অন্যতম হলেন অজয় দেবগন। অজয় দেবগন অভিনীত ‘সান অফ সর্দার’ সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছিল। বিষ আছে ‘জাব তাক হে জান’ সিনেমাটি রিলিজ করিয়েছিলেন কারাণ জোহার। সেই সময়ে অজয় দেবগন অভিনীত সিনেমাটি রীতিমতো টেক্কা দিয়েছিল শাহরুখ অভিনীত সিনেমারটিকে। যা হয়তো তারা সত্যিই আশা করতে পারেননি। অজয় দেবগনের সিনেমা বক্সঅফিসে আয় করল প্রায় ১২৫ কোটি টাকা। যা দেখে রীতিমতো চোখ কপালে উঠে ছিল সকালের। সেই সময় কারাণ জোহার ও অজয় দেবগনকে নিয়ে দীর্ঘ বিতর্ক চলছিল। শোনা যায় , সেই বিতর্ক কোট পর্যন্ত গড়িয়েছিল।

পরে আবারও বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছিল। অজয় দেবগন অভিনীত ‘শিবায়’ ছবিটির পাশাপাশি কারাণ জোহর পরিচালিত ও শাহরুখ খান অভিনীত ‘অ্যা দিল হ্যায় মুশকিল’ সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছিল। মুক্তি পাওয়ার পর থেকেই এই দুই সিনেমার মধ্যে শুরু হয়ে যায় বাজেটের লড়াই। এই সময় এই লড়াই শুধুমাত্র সিনেমাতেই আটকে থাকেনি। ক্রমশ ব্যক্তিগত হয়ে উঠেছিল সেই লড়াই। এই সময় নিজের স্ত্রী কাজলকে পাশে পেয়েছিলেন অজয় দেবগন।

পাশে পেয়েছিলেন একাধিক বলিউড তারকাকে। শেষ পর্যন্ত অজয় দেবগনের কাছে হার স্বীকার করতে হয়েছিল কারাণ জোহারকে। টক শো ‘কফি উইথ কারাণ’-এর সঞ্চালনায় ছিলেন কারাণ জোহার নিজেই। এই টক শো-তে তিনি ক্যামেরার সামনে পাশে অজয় দেবগনের কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, তিনি পুরো বিষয়টির জন্য দুঃখিত। তবে এই ঘটনা সত্যি কিনা তার কোন যথাযথ প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

Back to top button