বলিউড

‘ভারত গড়েছিল মুঘল শাসকরা’, ইতিহাসকে বিকৃত করে ভুল তথ্য দিয়ে বানানো হচ্ছে মুঘলদের নিয়ে সিনেমাগুলি, দাবি পরিচালক কবীর খানের

মুঘলরা ভারতবর্ষের কিছু অংশে ২০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে শাসন করেছিল। এটি ভারতীয় ইতিহাসের একটি গুরুত্বপূর্ণ যুগ ছিল, তাই বলিউডে বেশ কয়েকটি সিনেমা তাদের রাজত্বকালের সময়কালকে ফুটিয়ে তোলার জন্য তৈরি করা হয়েছে। তবে চলচ্চিত্র নির্মাতা কবির খান মনে করেন যে মুঘল সাম্রাজ্যের উপর নির্মিত সমস্ত চলচ্চিত্র মুঘলদের প্রতি ন্যায়বিচার করেনি। তিনি বলেছেন যে বেশিরভাগ চলচ্চিত্র তাদের ঐতিহাসিক প্রমাণ সহ বিচার না করেই তাদের চরিত্রকে ভিলেন বানিয়ে দর্শকের সামনে পেশ করা হয়েছে। জনপ্রিয়তা পাওয়ার জন্য বিভিন্ন ভুল তথ্য সিনেমার মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।

তিনি বলেছিলেন, “আমি এটিকে অত্যন্ত সমস্যাযুক্ত এবং বিরক্তিকর মনে করি, যা আমাকে সত্যিই বিরক্ত করে। এটি সম্পূর্ণ জনপ্রিয়তা পাওয়ার জন্যই করা হচ্ছে। যখন একজন চলচ্চিত্র নির্মাতা কোন চলচ্চিত্র বানানোর পরিকল্পনা করেন তখন সেই ইতিহাস সম্পর্কে কিছু গবেষণা ও তথ্য জেনে নেওয়া উচিত। একজন চলচ্চিত্র নির্মাতার অবশ্যই ভিন্ন ভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি থাকতে পারে তবে তিনি চলচ্চিত্রে সেই চরিত্রকে কেন ভিলেন হিসেবে ফুটিয়ে তোলা হলো তার যথেষ্ট যুক্তি দিয়ে বুঝিয়ে দেওয়া উচিত। আপনি যদি মুঘলদের ভিলেন করতে চান, তাহলে দয়া করে কিছু গবেষণার ভিত্তিতে এটি করুন এবং আমাদের বুঝতে দিন কেন; কেন তারা ভিলেন যে আপনি মনে করেন তারা ছিল”।

তিনি আরও বলেছিলেন যে মোগলরা ছিল এমন একটি জাতি যারা ভারত নির্মাণে সাহায্য করেছে। বিশেষত যদি এর কোন প্রমাণ না থাকে তাদেরকে চলচ্চিত্রে সরাসরি ভিলেন বানানো একদমই উচিত নয়। এর আগে পানিপথ, পদ্মাবত এবং তানাজির মতো বহু চলচ্চিত্রে মুঘলদের ভিলেন বানানো হয়েছে। তাদেরকে শয়তানের আরেক রূপ হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে। তানাজি সিনেমার সময় সাইফ আলি খান নিজের মুখে স্বীকার করেন একথা, তিনি বলেন এই চলচ্চিত্রে ইতিহাসকে বিকৃত করে তুলে ধরা হচ্ছে। এই নিয়ে বলিউডেও নানা বিতর্ক তৈরি হয়েছে।

এই চলতি সপ্তাহেই ডিজনি প্লাস হটস্টারে মুক্তি পেতে চলেছে চর্চিত সিরিজ ‘দ্য এম্পায়ার’, মুঘল সম্রাট বাবরের কাহিনি ফুটে উঠবে এই সিরিজে। এছাড়াও কবীর খানের ছবি ‘৮৩’ মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। করোনার জেরেই আটকে ছিল এই ছবি। গত বছর থেকেই মুক্তির পরিকল্পনা ছিল তবে মহামারীর জন্য রিলিজ করা হয়ে ওঠেনি ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রথম বিশ্বকাপ জয়ের প্রেক্ষাপটে তৈরি এই ছবি।

Back to top button