সুশান্তের ভাগ্য নির্ধারণ করেছিলেন একতা কাপুর! চ্যানেল বাদ দেওয়ার পরও একতার জেদেই অভিনয়ের সুযোগ পান সুশান্ত সিং রাজপুত

এই সেই অভিশপ্ত জুন মাস। আগের বছর এই জুন মাসের ১৪ তারিখেই মুম্বাইয়ের বান্দ্রার বিলাসবহুল ফ্ল্যাটে পাওয়া যায় সুশান্ত সিং রাজপুতের দেহ।

তার মৃত্যুকে নিয়ে তুমুল শোরগোল পড়ে গেছিল বলিউডে। সংবাদ চ্যানেল, সংবাদপত্র, সোশ্যাল মিডিয়ায় তার জন্য পোস্টে পোস্টে ভরে গেছিল। তার রহস্য মৃত্যুর কিনারা এখনো অব্দি হয়নি কবে হবে তাও জানা নেই।

এই জুন মাসের পয়লা তারিখের শুরু হয়েছিল ‘পবিত্র রিস্তা’। ২০০৯ সালে শুরু হয়েছিল এই সিরিয়ালটি। জি টিভির জনপ্রিয় সিরিয়াল গুলির মধ্যে অন্যতম ছিল এটি।

প্রতিবছর সুশান্ত সিং রাজপুত এই দিনটিকে পালন করতেন ‘পবিত্র রিস্তা’ বর্ষপূর্তি হিসেবে। গতবছরও তার ব্যতিক্রম হয়নি। সুশান্ত সিং রাজপুত ধন্যবাদ জানিয়ে ছিলেন একতা কাপুরকে তাকে সুযোগ করে দেওয়ার জন্য। কিন্তু তারপরেই ১৪ ই জুন এই সম্ভাবনাময় অভিনেতার রহস্য মৃত্যু হয়। অনেকের মত একতা কাপুরও ভেঙে পড়েছিলেন এই সংবাদে।

একতা কাপুরের জেদের জন্যই সুশান্ত সিং রাজপুত ‘পবিত্র রিস্তায়’ অভিনেতার ভূমিকায় অভিনয় করার সুযোগ পেয়েছিলেন। প্রথমে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ তাকে বাতিল করে দিয়েছিল।

কিন্তু একতা কাপুর মানবের চরিত্রে তাকে ছাড়া আর কাউকে ভাবতেই পারছিলেন না তাই তিনি শেষ পর্যন্ত লড়াই করে তাকেই মানব হিসেবে দর্শকের সামনে এনেছিলেন। একতা কাপুর প্রযোজিত ‘কিস দেশ মে হ‍্যায় মেরা দিল’ সিরিয়ালে নায়কের ছোট ভাইয়ের চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রিতে পা রেখেছিলেন সুশান্ত।

‘পবিত্র রিস্তা’ শুরু হওয়ার পর সুশান্ত অঙ্কিতার অনস্ক্রিন কেমিস্ট্রি নজর কেড়েছিল দর্শকদের। যারা এখনো মানুষের মনে থেকে গেছে। ২০০৯ – ২০১১ পর্যন্ত তিনি অভিনয় করেছিলেন ‘পবিত্র রিস্তায়’।

এরপর তিনি বলিউড থেকে ‘কাই পো ছে’ সিনেমায় অভিনয় করার সুযোগ পাওয়ার পর ছেড়ে দেন। তবে ‘পবিত্র রিস্তার’ শেষ এপিসোড তাকে আবার দেখা গিয়েছিল। ২০১৪ সালে শেষ হয়েছিল এই সিরিয়ালটি। জুন মাস পড়তেই সেই স্মৃতি ফিরে এলো আবারো।